দেশ 

‘মোদী হটাও দেশ বাঁচাও’ পোস্টার দিল্লী জুড়ে ছয়লাপ, ১০০ জনের বিরুদ্ধে এফআইআর, প্রিন্টিং প্রেসের মালিক সহ গ্রেপ্তার ৬, গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে পোস্টার মারার দায়ে পুলিশের এই তৎপরতা কতটা যুক্তিযুক্ত!

শেয়ার করুন

বাংলার জনরব ডেস্ক: মোদি হটাও দেশ বাঁচাও এই স্লোগান লেখা পোস্টারে ছেয়ে গেল দিল্লি। আর এই ধরনের পোস্টারকে অশ্লীল পোস্টার নাম দিয়ে নেমে পড়লো দিল্লি পুলিশ। ইতিমধ্যে দিল্লী পুলিশের পক্ষ থেকে ১০০ জনের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে এবং মামলা রুজু করে দিল্লি জুড়ে তল্লাশি শুরু হয়েছে। ইতিমধ্যে এই পোস্টার লাগানোর কাজে যুক্ত থাকার অভিযোগে ৬ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং বিভিন্ন জায়গা থেকে দু হাজারের বেশি আপত্তিকর পোস্টার বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে বলে দিল্লি পুলিশ দাবি করেছে।

দিল্লি পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, দিল্লির বিভিন্ন একালার দেওয়ালে, ল্যাম্প পোস্টে বেশ কিছু পোস্টার লাগানো হয়েছিল, যার মধ্যে দিয়ে প্রধানমন্ত্রী তথা মোদি (PM Modi) সরকারের বিরোধিতা করা হয়েছে। কোনওটিতে লেখা ‘মোদি হটাও, দেশ বাঁচাও’ তো কোনওটিকে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে স্লোগান তোলা হয়েছে। তদন্তে নেমে অন্তত ১০০ জনের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছে পুলিশ।

Advertisement

স্পেশ্যাল সিপি দীপেন্দ্র পাঠক জানান, আম আদমি পার্টির অফিসে যাওয়ার পথে একটি ভ্যানকে আটকানো হয়। সেখান থেকে অন্তত ২ হাজার পোস্টার উদ্ধার করা হয়। ভ্যান চালকের দাবি, তাঁকে আপ অফিসে পোস্টারগুলি পৌঁছে দিতে বলা হয়েছিল। এর থেকেই পুলিশের প্রাথমিক অনুমান, পোস্টার ছড়ানোর নেপথ্যে কেজরি সরকারের মদত থাকতে পারে। যদিও এ নিয়ে এখনও মুখ খোলেনি আপ।

এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত ৬ জন অভিযুক্তকে নিজেদের জালে পেয়েছে দিল্লি পুলিশ। গ্রেফতার করা হয়েছে প্রিন্টিং প্রেসের মালিককেও। যিনি জানিয়েছেন, তাঁর কাছে ‘মোদি হটাও, দেশ বাঁচাও’ লেখা ৫০ হাজার পোস্টারের অর্ডার এসেছিল।

গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে প্রধানমন্ত্রী বিরুদ্ধে পোস্টার মারার দায়ে যেভাবে পুলিশ তৎপরতা দেখাচ্ছে তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। প্রধানমন্ত্রী কি দেশের সম্রাট নাকি যে তার বিরুদ্ধে পোস্টার দেওয়া যাবে না এ প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছে নাগরিক সমাজ। দেশ জুড়ে নিন্দার ঝড় বয়ে যাচ্ছে। যে প্রধানমন্ত্রী শান্তির জন্য নোবেল পুরস্কার প্রাপ্তির দাবি উঠেছে সেই প্রধানমন্ত্রীর আমলেই পোস্টার মারার দায়ে যেভাবে ১০০ জনের বিরুদ্ধে এফআইআর করা হলো তা নিয়ে প্রশ্ন তো উঠবেই।

 


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ