দেশ 

Supreme Court : “হিন্দু ধর্মের মধ্যে কোনও গোঁড়ামি নেই,তাই অযথা এমন অতীত খুঁড়ে বের করবেন না, যাতে দেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট হয়, দেশে আগুন জ্বালাতে পারি না আমরা” দেশের বিভিন্ন প্রান্তের নাম বদলের মামলা খারিজ করে মন্তব্য সুপ্রিম কোর্টের

শেয়ার করুন

বাংলার জনরব ডেস্ক: দেশের বিভিন্ন প্রান্তের নামকরণ দেখে আক্রমণকারীদের কথা মনে পড়ে যায় অবিলম্বে এই নামকরণ পাল্টে দেওয়ার জন্য একটি বিশেষ কমিশন গঠনের আর্জি নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে জনস্বার্থে মামলা করেছিলেন বিজেপি নেতা ও আইনজীবী অশ্বিনী উপাধ্যায়। তিনি সুপ্রিম কোর্টে আবেদনে বলেছেন ভারত ইতিহাসের দাস হয়ে থাকতে পারে না স্বাধীনতার ৭৫ বছর পর একাধিক গুরুত্বপূর্ণ জায়গার নাম দেখে নৃশংস আক্রমণকারীদের কথা মনে পড়ে যায় অবিলম্বে এই জায়গাগুলির দাম পরিবর্তন প্রয়োজন আর এর জন্য প্রয়োজন একটি কমিশন তৈরি করা যারা আর্কিওলজিক্যাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়ার সঙ্গে কথা বলে নতুন নামকরণ করবে।

বিজেপি নেতা অশ্বিনী উপাধ্যায়ের এই মামলার শুনানি ছিল আজ সোমবার সুপ্রিম কোর্টে। শুনানিতে রীতিমত মামলা কারিকে ধমক দেন দুই বিচারপতি। এই মামলা খারিজ করে দিয়ে শীর্ষ আদালতের ২ বিচারপতি বলেছেন,এই আবেদন মেনে নিলে দেশে আগুন জ্বলে যেতে পারে।

Advertisement

বিচারপতি কে এম জোসেফ ও বিভি নাগারত্নের বেঞ্চের তরফে জানানো হয়, “এটা সত্যি যে একটা সময় আক্রমণকারীরাই আমাদের দেশ শাসন করেছিল। কিন্তু তার জন্য ইতিহাসের একটা নির্দিষ্ট অধ্যায় মুছে দেওয়া যায় না। দেশের ইতিহাস কখনই বর্তমান ও ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে ভয় দেখাতে পারে না।”

শীর্ষ আদালতের তরফে আরও বলা হয়েছে, “ভারত একটি ধর্মনিরপেক্ষ দেশ। আর হিন্দুত্ব শুধু একটি ধর্ম নয়, জীবন যাপনের উপায়ও। হিন্দু ধর্মের মধ্যে কোনও গোঁড়ামি নেই। তাই অযথা এমন অতীত খুঁড়ে বের করবেন না, যাতে দেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট হয়। দেশে আগুন জ্বালাতে পারি না আমরা।” বিজেপি নেতার জনস্বার্থ মামলার উদ্দেশ্য নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন শীর্ষ আদালতের দুই বিচারপতি।

বেশ কিছুদিন ধরেই মুঘলদের দেওয়া নাম (Renaming Commission) পালটে সংশ্লিষ্ট জায়গার ‘আদি’ নাম রাখার উদ্যোগ নিয়েছে বিজেপি সরকার। এই কাজে গতি আনতেই নামকরণ কমিশন গঠনের প্রস্তাব দেন বিজেপি নেতা উপাধ্যায়। আর্কিওলজিক্যাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়া গবেষণা করে নানা জায়গার আদি নামের তালিকা প্রকাশ করবে, সেই জায়গার নাম পালটে দেওয়া হবে, এমনটাই দাবি ওই জনস্বার্থ মামলায়।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ