অন্যান্য 

স্বাধীন ভারতের আধুনিক শিক্ষার জনক ছিলেন মৌলানা আবুল কালাম আজাদ

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বুলবুল চৌধুরি : ১৮৮৮ সালের ১১ নভেম্বর স্বাধীন ভারতের প্রথম শিক্ষামন্ত্রী মৌলানা আবুল কালাম আজাদের জন্ম দিন । তিনি একজন আরবী শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে দেশের শিক্ষা ব্যবস্থার অন্যতম জনক হিসেবে কাজ করে গেছেন । আধুনিক শিক্ষা-ব্যবস্থার যে উন্নয়ন আমরা দেখতে পাচ্ছি তার সবটাই হয়েছে মৌলানা আজাদের চিন্তাভাবনার ফসল । সেই জন্য তাঁর জন্মদিনটিকে ভারত সরকার শিক্ষাদিবস হিসেবে পালন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ।

ফলে তাঁর জন্মদিন ১১ নভেম্বর সেন্ট্রাল বোর্ড অব সেকেন্ডারি এডুকেশন (সিবিএসই)-র তরফে নিয়ন্ত্রণাধীন সমস্ত স্কুলগুলির কাছে ওই দিন বিশেষ অনুষ্ঠান আয়োজনের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে । বিগত ১০ বছর ধরে মৌলানা আবুল কালাম আজাদের জন্মদিনে শিক্ষাদিবস হিসেবে পালন করা হলেও এ বার ছুটির দিনে পড়ায় ওই দিনে শিক্ষার প্রয়োজনীয়তা ব্যাখ্যা-সহ দিনটির তাৎপর্য বিশ্লেষণে বিশেষ অনুষ্ঠান আয়োজন করতে বলেছে বোর্ড। পাশাপাশি আগামী ২০ নভেম্বরের মধ্যে ওই অনুষ্ঠান সংক্রান্ত একটি রিপোর্ট কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে পাঠানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে ।

মৌলানা আবুল কালাম আজাদ স্বাধীন ভারতের আধুনিক শিক্ষার জনক হিসেবে যা করে গেছেন  তা সংক্ষেপে তুলে ধরা হল ।

১. মৌলানা আবুল কালাম আজাদ শিক্ষামন্ত্রী হিসেবে আইআইটি গড়ে তুলে ছিলেন । তাঁর উদ্যোগ আগামী দিনে দেশের ভবিষ্যৎ প্রজন্ম যাতে দেশকে গড়ে তুলতে পারে সেই লক্ষ্যেই তিনি মেধার বিকাশের উদ্দেশে গড়ে তুলে ছিলেন আইআইটি ।

শিক্ষার্থীদের মধ্যে আধুনিক শিক্ষার পাশাপাশি মূল্যবোধ যাতে বিকশিত হয় সেজন্য মাধ্যমিক স্তরে তিনি মহাপুরুষদের জীবনী পড়ানোর উদ্যোগ নিয়েছিলেন।.

৩. তিনি আরবী ভাষায় দক্ষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে অঙ্ক, দর্শন, বিশ্ব ইতিহাস এবং বিজ্ঞানের উপর সমান দক্ষ ছিলেন।

৪. উর্দু, হিন্দি, পার্শি, আরবিক এবং হিন্দি- ৫ ভাষাতেই সমান সাবলীল।

৫. ‘সকলের জন্য শিক্ষা’ মতের প্রবক্তা ছিলেন আজাদ।

৬. উচ্চ-শিক্ষা ব্যবস্থাকে যথাযথভাবে পরিচালনা করার জন্য তিনি বিশ্ববিদ্যালয় মন্জুরি কমিশন গঠন করেছিলেন । বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজ স্তরে শিক্ষার মান নির্ধারন করার জন্য তিনি বিশিষ্ট শিক্ষাবিদরাধাকৃষ্ননের নেতৃত্বে বিশ্ববিদ্যালয় কমিশন গঠন করেছিলেন।

৭. আইআইটি, আইআইএসসি এবং স্কুল অব আর্কিটেচার অ্যান্ড প্ল্যানিং নির্মাণও ছিল তাঁর মস্তিষ্কপ্রসূত।

৮.  কেন্দ্রীয় সরকারের কর্মচারীদের ছেলেমেয়েদের উপযুক্ত শিক্ষায় শিক্ষিত করার জন্য তিনি কেন্দ্রীয় বিদ্যালয় তৈরি করার উদ্যোগ নিয়েছিলেন । তিনিই প্রথম ভেবেছিলেন এক অভিন্ন সিলেবাসের কথা । বদলীর চাকরি যারা করেন তাদের ছেলেমেয়েরা যাতে উন্নতমানের শিক্ষা থেকে বঞ্চিত না হয় তার জন্য কেন্দ্রীয় বিদ্যালয় স্থাপন করেছিলেন । এক অভিন্ন সিলেবাসের মাধ্যমে পড়ানোর ব্যবস্থাও করেছিলেন ।

৯. ১৪ বছর বয়স পর্যন্ত শিক্ষা বাধ্যতামূলক করার পক্ষে জোরালো সওয়াল করেন।

১০.বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ এবং স্বাধীনতা আন্দোলনের অন্যতম সেনানী দেশ নেতা মৌলানা আবুল কালাম আজাদের জন্ম: ১১ নভেম্বর, ১৮৮৮, মৃত্যু: ২২ ফেব্রুয়ারি, ১৯৫৮

 

 

 

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment