জেলা 

বহু ভাষাবিদ পন্ডিত ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ ও কবি শাহাদাত হোসেনের স্মরণে হাড়োয়া বইমেলা

শেয়ার করুন

আসাদ আলী, বাংলার জনরব : হাড়োয়া সার্কাস ময়দানে চলছে হাড়োয়ার প্রথম বইমেলা। ২১জানুয়ারি ২০২৩ উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ও সমাপ্তি হয় ২৩শে জানুয়ারি নেতাজী সুভাষচন্দ্র বসুর জন্ম দিনে। দুপুর ৩ টে থেকে রাত্রি ১০ টা পর্যন্ত চলবে।

বইমেলার প্রধান পৃষ্ঠপোষক ছিলেন ফরিদ জমাদার ও আব্দুল খালেক মোল্লা। উপদেষ্টাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্যরা হলেন ইউনুস আলি মোল্লা, আহাদ আলি মোল্লা, শিক্ষক মহিউদ্দিন মোল্লা, শিক্ষক হাসানুজ্জামান, শুভেন্দু মন্ডল, হাফেজ আজিজ উদ্দিন প্রমুখ বিশিষ্ট জন।

Advertisement

ছাত্র ছাত্রী শিক্ষক শিক্ষিকা ও সমাজের বিশিষ্ট জনদের বর্নাঢ্য শোভাযাত্রার মধ্য দিয়ে প্রথম দিন অর্থাৎ ২১/০১/২০২৩ তারিখে প্রথম বইমেলার শুভ সূচনা হয় হাড়োয়ার পবিত্র মাটিতে। তারপর মঞ্চে প্রদীপ প্রজ্জ্বলন ও শ্বেত কবুতর ওড়ানোর মধ্য দিয়ে হাড়োয়ার ভূমিপুত্র বহুভাষাবিদ পন্ডিত ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ ও কবি শাহাদাত হোসেনের স্মরণে নামাঙ্কিত মঞ্চে শুরু হয় নানাবিধ সাংস্কৃতিক কার্যক্রম।

উপস্থিত ছিলেন বৌদ্ধ ভিক্ষু ড. অরুণ জ্যোতি ভিক্ষু, ড. অর্চন কান্তি দাস, ড. অমিত চক্রবর্তী, হাজী আবু বক্কর সিদ্দিক, বক্তব্য রাখেন-প্রধান শিক্ষক রাইগাছি হাইস্কুলের শঙ্খ ভট্টাচার্য, প্রধান শিক্ষক হাদিপুর হাইস্কুলের মহঃ সিরাজুল ইসলাম, রাজ্য সম্পাদক ‘বেডস’এর আমিন ইসলাম, রাজ্য সভাপতি ‘বেডস’এর সাজাহান ইসলাম সাহেব। সহযোগিতা ও সঞ্চালনায় ছিলেন প্রধান পৃষ্ঠপোষক ফরিদ জমাদার ও আব্দুল খালেক মোল্লা।

বইমেলার দ্বিতীয় দিন অর্থাৎ ২২/০১/২০২৩ তারিখ রবিবার কলকাতা আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. সাইফুল্লা সামিম, আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. আয়াতুল্লাহ ফারুক, সেন্ট জেভিয়ার্স ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক ড. রবিউল ইসলাম, ঔপন্যাসিক ও গল্পকার ইসমাইল দরবেশ, ইতিহাসবেত্তা ও প্রবন্ধকার ডঃ সেখ নূর মহম্মদ, কবি ও গীতিকার শাহাবুদ্দিন মুফতি, কবি ও গীতিকার আব্দুল্লাহ আল মাসুম, শিক্ষক, সাংবাদিক, প্রাবন্ধিক ও কবি মহম্মদ মফিজুল ইসলাম, কবি, প্রবন্ধকার ও সাংবাদিক আসাদ আলী, শিক্ষক, কবি ও গল্পকার আসাদুজ্জামান, লেখিকা সেরিনা খাতুন, কবি রুমানা, হাবিবুর রহমান,পারভীন প্রমুখ, রাষ্ট্রপতি পদক প্রাপ্ত ও রবীন্দ্রগবেষক জাতীয় শিক্ষক ড. নিরঞ্জন বন্দোপাধ্যায়,হাড়োয়া থানার অফিস ইনচার্জ বাপ্পা মিত্র, বারাসাত ৩৩ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর গোপাল বন্দোপাধ্যায় প্রমুখ বিশিষ্ট জন। অনুষ্ঠান প্রাঙ্গণ ছিল প্রাণচঞ্চল জ্ঞানীগুণী বক্তা গণের বক্তব্য, কবিতা পাঠ, কচি কাঁচাদের নৃত্যগীত ও আবৃত্তিতে ছিল ভরপুর।

সঞ্চালনায় ছিলেন প্রধান পৃষ্ঠপোষক ফরিদ জমাদার ও আব্দুল খালেক মোল্লা। সহযোগিতায় সমস্ত উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য গণই ছিলেন। প্রথম বছরেই প্রচুর জনসমাগমে মেলা কমিটির সদস্য গণ ও আগত অতিথি বৃন্দগণ খুবই উৎসাহিত ও আনন্দিত এবং আশাবাদী।

 

 


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ