আন্তর্জাতিক বিনোদন, সংস্কৃতি ও সাহিত্য 

বাংলাদেশ জাতীয় কবি পরিষদের তৃতীয় বার্ষিকীতে আন্তর্জাতিক গুণীজন সংবর্ধনা ২০২৩

শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক গুণীজন সংবর্ধনা ২০২৩ শুক্রবার আয়োজনে প্রাণের মেলা জাতীয় পরিষদ বাংলাদেশ জাতীয় কবি পরিষদের তৃতীয় বার্ষিকী

সংবর্ধনা দেয়া হয় পশ্চিমবঙ্গে ভারত থেকে আগত শিশু সাহিত্যিক কবি আব্দুল করিম মহাশয়কে। সম্বর্ধনা তুলে দেন মোহাম্মদ আবু আহমেদ জমাদার বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি হাইকোর্ট বিভাগ উপস্থিত ছিলেন মাহমুদুল হাসান নিজামী বহু গ্রন্থপ্রনেতা। ছিলেন ডঃ মোঃ হোসেন সভাপতি বাংলাদেশ সোসাইটি ।ডঃ খান আসাদুজ্জামান সফেন ফাউন্ডেশন মোঃ হোসেন নিজামি মুসলিম আমিনুল ইসলাম মোঃ আমির হোসেন রুনা আক্তার মসিবুর রহমান সুজন রায় আব্দুল হাকিম রফিকুল ইসলাম সফল মুন্সি ফারুক মোঃ জাহাঙ্গীর ইমতিয়াজ আহমেদ সমগ্র অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন মোঃ আলমগীর জুয়েল।

Advertisement

আলোচনায় উঠে আসে দেশ-বিদেশ  বসবাসকারী বাঙ্গালী মানুষের কথা বাঙালি জাতি পৃথিবীর এমন এক জাতি ভুবন জুড়ে সবখানে বর্তমান বিশ্বে খুঁজে পাওয়া যায় বাঙালি ভাষা সাহিত্যের আলোচনায় আমেরিকা ইউরোপ আফ্রিকা বাংলাদেশ ও ভারতের কবি ও সাহিত্যিক উপস্থিত ছিলেন।

কবি আব্দুল করিম বক্তব্য রাখতে গিয়ে বলেন, আমার প্রিয় ভারত বর্ষ আমার জন্মভূমি বাংলাদেশ আমার মায়ের ভাষার দেশ বাঙালি জাতির ভাষার দেশ বিশ্ব ভাষা দিবসের উদযাপনকারী দেশ সকল ভাষার সম্মান প্রতিষ্ঠার দেশ বাংলাদেশ সকল বাংলাদেশবাসীর কাছে শ্রদ্ধা সেলাম। বারবার মিশে যান আমরা যখন ওই বাংলায় গিয়ে অনুষ্ঠানে একত্রিত হই আমাদের মনে হয় না যে আমরা বাংলাদেশের বাইরে কোথাও রয়েছি। এটাই বাঙালির সংস্কৃতি যেখানে এক হয়ে যায় বারবার সকল বাঙালি এক যুগে আনন্দ উৎসবে তখন দেশের বেড়াজাল আমাদের রুখে রাখতে পারেনা।

শুভেচ্ছা জ্ঞাপন করেন মাহমুদুল হাসান নিজামী তার বক্তব্য বলেন, প্রতিবেশী দেশ ভারত বর্ষ থেকে আগত আব্দুল করিম সাহেবের বক্তব্যের মধ্যে যে আত্মিক সম্পর্কের কথার প্রকাশ ঘটেছে আমরা আনন্দিত আমরা গর্বিত আমাদের রাষ্ট্রের বাইরে অগণিত বাঙালি রয়েছেন যারা আমাদের মতই কথা বলেন সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতির উপস্থিতি এবং বহু শিক্ষা সংস্কৃতির জগতের মানুষের উপস্থিতিতে ভরে উঠেছিল সভাঘর। কাদের পারে না আমাদের হৃদয়ের কোন বাঁধনাকে আগামী দিন আমরা আবার সকলেই একত্ব আবদ্ধ ভাবে বাঙালি সমাজের বিশেষ বিশেষ দিকপালদের পুরস্কারে পুরস্কৃত করবো এই অঙ্গীকার করেন কচিকাঁচা মিলায়তনে উপচে পড়া ভিড় ছিল চোখে দেখার মতো।

বক্তব্য রাখতে গিয়ে আলমগীর হাওলাদার বলেন, আমরা সকলকে সম্মান জানিয়েছি বিশেষ করে ভারত থেকে আগত প্রতিনিধিদের প্রতি আমাদের বিশেষ শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করছি সেই সঙ্গে ৭১ সমকালীন সময়ে মুক্তিযুদ্ধের ভারত বর্ষের অবদান আমাদের কাছে চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ