কলকাতা 

তাজমহলে শুক্রবার বাদে অন্যদিনে নামাজ পড়া বন্ধ করার প্রতিবাদে বুদ্ধিজীবীদের প্রতিক্রিয়া মুসলিমদের ধর্মীয় স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ : সরদার আমজাদ আলী ; চলতি সংকট থেকে দৃষ্টি ঘুরিয়ে দেওয়ার জন্য বিজেপি-সংঘ পরিবারের অপচেষ্টা : রনজিৎ শূর ; বিজেপি হিন্দু ধর্মের কলংক : ইমানুল হক

শেয়ার করুন
  • 35
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বিশেষ প্রতিনিধি : কেন্দ্রের বিজেপি সরকার এবার সরাসরি মুসলিমদের ধর্মীয় স্বাধীনতা হস্তক্ষেপ করল । তাজমহলে শুক্রবার বাদে অন্যদিনগুলিতে নামাজ পড়া নিষিদ্ধ ঘোষণা করল । আর এনিয়ে দেশজুড়ে শোরগোল পড়েছে । রাজ্যের বিশিষ্ট বুদ্ধিজীবী ও প্রাক্তন সাংসদ সরদার আমজাদ আলী এ প্রসঙ্গে বলেছেন , বিজেপি হিন্দু রাষ্ট্র গঠনের যে উদ্যোগ নিয়েছে তা তাজমহলে নামাজ পড়া বন্ধে করে সেই উদ্যোগকে বাস্তবায়নের দিকে এগিয়ে নিয়ে চলেছে ।

আজ শুক্রবার বাদে অন্যদিনগুলিতে নামাজ পড়া নিষিদ্ধ করেছে ঠিকই কিছুদিন পরে তাজমহলের প্রান্তরে নামাজ পড়া নিষিদ্ধ করে দিতে পারে । দেশজুড়ে সবার প্রতিবাদে গর্জে ওঠা উচিত বলে কংগ্রেস নেতা সরদার আমজাদ আলী মনে করেন । আসলে বিজেপি তার হিন্দুত্বের এজেন্ডাকে আস্তে আস্তে প্রয়োগ করতে চলেছে । দেশের কোনো উন্নয়ন না করে শুধুমাত্র ধর্মীয় জিগির তুলে দেশে অস্থিরতা সৃষ্টি করতে চাইছে সংঘ পরিবার বলে আমজাদ সাহেব মন্তব্য করেন । তাজমহলে নামাজ পড়া বন্ধ করে আসলে সংবিধানের ধর্মীয় অধিকারকেই কেড়ে নেওয়া হয়েছে বলে বিশিষ্ট আইনজীবী সরদার আমজাদ আলী অভিমত ব্যক্ত করেন ।

শুধু সরদার আমজাদ আলী নয়, মানবাধিকার কর্মীরাও এ নিয়ে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন । এপিডিআরের সভাপতি রনজিৎ শূর এ প্রসঙ্গে বাংলার জনরবকে বলেন, এএসআই বিশেষ কোনো কারণে যেকোনো ঐতিহাসিক স্থাপত্য রক্ষার জন্য ব্যবস্থা নিতে গিয়ে নামাজ পাঠ কিংবা পূজা বন্ধ করতে পারে । কিন্ত আমার মনে হয় তাজমহলের ক্ষেত্রে এই সিদ্ধান্তটা ব্যতিক্রম । কারণ দেশজুড়ে চলা অর্থনৈতিক সংকটে মুখে এই সিদ্ধান্ত সরকার নিয়ে আসলে এদেশের সংখ্যালঘুদের ধর্মীয় স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করতে চাইছে । একইসঙ্গে উগ্র হিন্দুত্ববাদকে আরও বেশি করে জাগানোর চেষ্টা করছে । আসলে দেশজুড়ে যে অর্থনৈতিক সংকট চলছে সেই সমস্যা থেকে সাধারণ মানুষের দৃষ্টি ঘুরিয়ে দেওয়ার লক্ষ্যে বিজেপি ও সংঘ পরিবার পরিকল্পিতভাবে একাজ করে চলেছে ।

বিশিষ্ট বুদ্ধিজীবী ও ভাষা ও চেতনা সমিতির কর্নধার অধ্যাপক ইমানুল হক এ প্রসঙ্গে বলেন , তাজমহলে নামাজ পড়ার অধিকার কেড়ে নিয়ে  দেশের সংবিধানকেই অমান্য করছে বিজেপি সরকার । নির্বাচনে হেরে যাবার আগে তারা ধর্মীয় ফ্যাসীবাদকে কায়েম করার চেষ্টা করছে । বিজেপি হিন্দু ধর্মের কলঙ্ক। ভারতের চিরন্তর ঐতিহ্য ও সংস্কৃতির বিরোধী । হিন্দু ধর্ম পরমত সহিষ্ণুতার কথা বলে । অন্যের ধর্মের আঘাত দেওয়ার কথা বলে না । বিজেপি হিন্দু বিরোধী কাজ করে চলেছে । এর বিরুদ্ধে সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষের গর্জে ওঠা উচিত  বলে ইমানুল হক মন্তব্য করেন। তিনি আরও বলেন দেশ চালাতে সম্পূর্ণভাবে ব্যর্থ হয়েছে মোদী সরকার । এই অবস্থায় ধর্মীয় জিগির তুলে ধর্মের নামে অধর্ম করে বিভেদ সৃষ্টি করতে চাইছে । এটা ভারতে সম্ভব হবে না বলে তিনি মন্তব্য করেন ।

 


শেয়ার করুন
  • 35
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment