কলকাতা 

রাম-মন্দির নিয়ে সংসদে বিল আনছে কেন, আসলে বিজেপি ছলনার রাজনীতি করছে প্রশ্ন অধীরের

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : অযোধ্যা মামলার শুনানিতে সুপ্রিম কোর্ট সাফ জানিয়ে দিয়েছে, আগামী বছরের জানুয়ারির আগে এই মামলার শুনানি সম্ভব নয়।এ প্রসঙ্গে প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে প্রাক্তন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরি বিজেপিকে কটাক্ষ করে বলেন, জিএসটি বা তালাকের মতো বিষয়গুলি নিয়ে যখন বিজেপি বিল নিয়ে আসতে পারে, তা হলে রামমন্দির নিয়েও তারা তা করে দেখাতে পারে। আসলে বিজেপি ছলনার রাজনীতি করছে বিজেপি।সোমবার অযোধ্যা মামলার শুনানির দিন পিছানোর পর বাড়া ভাতে ছাই পড়া বিজেপির মুশকিল আসান হয়ে অধীরবাবু বলেন, সংসদে বিজেপির সংখ্যাগরিষ্ঠতা রয়েছে। তা সত্ত্বেও কেন কেন্দ্রীয় সরকার রাম মন্দির প্রতিষ্ঠায় বিল নিয়ে আসছে না? অযোধ্যায় রামমন্দির নির্মাণ নিয়ে সহযোগী সংগঠন এবং দলীয় কর্মী-সমর্থকদের উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পাওয়া চাপ। এমন অবস্থায় বিশ্ব হিন্দু পরিষদের তরফে দাবি করা হয়েছে, কেন্দ্রীয় সরকার অর্ডিন্যান্স নিয়ে এসে রাম মন্দিরের নির্মাণ কাজ শুরু করুক। একই ভাবে প্রদেশ কংগ্রেসের প্রাক্তন সভাপতি তথা কংগ্রেস সাংসদ অধীর চৌধুরীও ‘বক্রবাণে’ বিদ্ধ করলেন বিজেপিকে।

বিজেপি সভাপতি স্বয়ং কেরলে গিয়ে অযোধ্যা মামলার শুনানির বিষয়ে সুপ্রিম কোর্টের উপর আস্থা রাখার কথা জানিয়েছিলেন। একই ভাবে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথও সুপ্রিম কোর্টের উপর ভরসা রাখার কথা প্রকাশ করেছিলেন। কিন্তু এক দিকে বিশ্বহিন্দু পরিষদের চাপ অন্য দিকে আগামী ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের বোঝা। ফলে সুপ্রিম কোর্টের শুনানির জন্য

অপেক্ষা না কি বিশ্বহিন্দু পরিষদের দাবি মেনে অর্ডিন্যান্স জারি করবে, দ্বিমুখী প্রশ্নে শাঁখের করাতে পড়েছে কেন্দ্রের শাসক দল । অবশ্য  কেন্দ্রীয় ভাবে কংগ্রেসের তরফে প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী পি চিদম্বরম টুইটারে লিখেছেন, ভোট এলেই রামমন্দির নিয়ে হাওয়া গরম করে বিজেপি। অধীরবাবুও কতকটা একই ঢঙে বলেন, গেরুয়া শিবির ইচ্ছাকৃত ভাবে ভোটের আগে রাম নাম যপ করে।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment