আন্তর্জাতিক 

বাংলাদেশের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী খালেদা জ়িয়াকে দুর্নীতি মামলায় সাত বছর কারাদণ্ড দিল সেই দেশের আদালত

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : বাংলাদেশের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী খালেদা জ়িয়াকে দুর্নীতি মামলায়  সাত বছর কারাদণ্ডের নির্দেশ দিল সেদেশের আদালত।

তাঁর স্বামী জ়িয়াউর রহমানের নামাঙ্কিত একটি অনাথ আশ্রমের অর্থ আত্মসাতের দায়ে ফেব্রুয়ারিতে খালেদা জ়িয়াকে ৫ বছর কারাদণ্ডের নির্দেশ দেয় আদালত।আর একটি দুর্নীতির মামলা নিম্ন আদালতে চলছিল খালেদার বিরুদ্ধে। তাঁর জেলবন্দী অবস্থাতেই সেই মামলার শুনানি চলছিল। এদিকে একাধিক অসুস্থতা নিয়ে হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীর। এই পরিস্থিতিতে তাঁর অনুপস্থিতিতে যাতে দুর্নীতি মামলার শুনানি না হয় সেই দাবিতে আদালতের দ্বারস্থ হন খালেদা।

যদিও হাইকোর্ট সেই দাবি খারিজ করে। পুনরায় অ্যাপেক্স কোর্টের দ্বারস্থ হন তিনি। অ্যাপেক্স কোর্ট হাইকোর্টেরই নির্দেশ বহাল রাখে।খালেদার অনুপস্থিতিতে ওল্ড ঢাকার সেন্ট্রাল জেলেই দুর্নীতি মামলায় শুনানির নির্দেশ দেয় আদালত। শেষমেশ আজ খালেদাকে সাতবছর কারাদণ্ডের সাজা শোনানো হয়।
এদিকে আজ রায় ঘোষণার পর রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে তাঁকে ফাঁসানো হয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছেন বিএনপি-র সমর্থকরা। সেই অভিযোগকে কেন্দ্র করে পুলিশ-বিএনপি-র সমর্থকদের  মধ্যে খণ্ডযুদ্ধ শুরু হয়ে যায়। খালেদার আইনজীবীও সামগ্রিক ঘটনাকে রাজনৈতিক প্রতিহিংসা বলে অভিযোগ করেছেন।

খালেদার বিরুদ্ধে একাধিক হিংসা এবং দুর্নীতির ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগ আছে। খালেদার অবশ্য দাবি, তাঁর পরিবারকে রাজনীতি থেকে দূরে সরিয়ে রাখতেই এইসব অভিযোগ সাজানো হয়েছে। উল্লেখ্য, ২০১৪-র বাংলাদেশের সাধারণ নির্বাচন বয়কট করেন খালেদা। মসনদ দখল করেন শেখ হাসিনা।

 

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment