আন্তর্জাতিক 

শ্রীলঙ্কায় রনিল বিক্রমসিংঘ বরখাস্ত হয়েও নিজেকে বৈধ প্রধানমন্ত্রী দাবি করছেন , চূড়ান্ত সাংবিধানিক সংকটে ভারত মহাসাগরের এই দ্বীপটি

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমসিংঘেকে বরখাস্ত করেছেন  শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট মৈথ্রিপালা সিরিসেনা । নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রীকে বরখাস্ত করে বিতর্কিত মাহিন্দ্র রাজপক্ষকে নতুন প্রধানমন্ত্রী নিযুক্ত করেছেন। প্রেসিডেন্টের এই সিদ্ধান্তের জেরে সেদেশে সাংবিধানিক সংকট তৈরি হতে পারে বলে রাজনৈতিক বিশেষঞ্জরা মনে করছেন। শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট মৈথ্রিপালা সিরিসেনা বিষ্ময়কর সিদ্ধান্তের পর সদ্য প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমসিংঘে জানান, তিনিই দেশের বৈধ প্রধানমন্ত্রী। এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে তিনি আদালতের লড়াই করবেন। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, এই সাংবাদিক সম্মেলন তিনি করছেন দেশের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে। তিনিই দেশেই প্রধানমন্ত্রী হিসেবে কাজ করবেন। নব নিযুক্ত প্রধানমন্ত্রী রাজাপক্ষের কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

সদ্য প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী বিক্রমসিংঘে বলেছেন, পার্লামেন্টের স্পিকার কারু জয়সূর্যকে তিনি সভা ডাকতে বলেছেন। যেখানে তার ইউনাইটেড ন্যাশনাল পার্টি এবং সহযোগীরা তাদের সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমাণ করবেন। স্পিকার জানিয়েছেন, তিনি আইনগত দিকগুলি খতিয়ে দেখছেন। শীঘ্রই তিনি তাঁর সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা করবেন। ২০১৫-র নির্বাচনে সিরিসেনা রাজাপক্ষের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী বিক্রমসিংঘের দল নির্বাচনে জয়লাভ করে। জয়ের পরেই সংবিধান সংশোধন করে প্রধানমন্ত্রীকে বরখাস্ত করার অধিকার কেড়ে নেওয়া হয়েছিল প্রেসিডেন্টের হাত থেকে।

বিশেষ সূত্রে জানা গিয়েছে , অর্থনৈতিক নীতি এবং সরকারের প্রশাসনিক কাজ নিয়ে প্রেসিডেন্ট সিরিসেনার সঙ্গে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী বিক্রমসিংঘের সংঘাত তৈরি হয়েছিল।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment