দেশ 

সিবিআই প্রধান অলোক ভার্মাকে ‘বাধ্যতামূলক ‘ ছুটিতে পাঠানোর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ-মিছিল করতে গিয়ে গ্রেপ্তার রাহুল

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : রাফাল বির্তকের রেশ কাটতে না কাটতেই আবার সিবিআই দপ্তরে ঘুষ কান্ডকে ঘিরে যুযুধান দুই উচ্চপদস্থ আধিকারিকের লড়াই শেষ পর্যন্ত রাজনৈতিক দ্বন্দ্বে পরিণত হয়েছে । রাতের অন্ধকারে মোদী সরকার দুই উচ্চপদস্থ আধিকারককে বাধ্যতামূলক ছুটিতে পাঠিয়েছে । সেন্ট্রাল ভিজিলেন্স কমিশনকে ঢাল বানিয়ে মোদী সরকারের এই সিদ্ধান্তে দেশজুড়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়েছে ।

পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের প্রাককালে কেন্দ্রের এই আত্মঘাতী সিদ্ধান্তের সুযোগ নিতে বিন্দুমাত্র ভুল করেননি কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী । তিনি সিবিআই দপ্তরের মধ্যরাতের সার্জিক্যাল স্ট্রাইককে নাটক বলে অভিহিত করে দেশজুড়ে পথে নেমে আন্দোলনের ডাক দিয়েছেন । গত কালই দেশের সব রাজ্যের সিবিআই দপ্তরের সামনে বিক্ষোভ দেখিয়েছে কংগ্রেস কর্মীরা । শুক্রবার যখন সুপ্রিম কোর্টে সিবিআই –র অপসারিত ডিরেক্টর ইনসাফ পাওয়ার জন্য বিচারপ্রার্থী হয়েছেন । ঠিক সেই সময়ই দিল্লির লোধি রোডে অবস্থিত সিবিআই-র সদর দপ্তরের সামনে রাহুল গান্ধী নিজে দাঁড়িয়ে থেকে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছেন । তিনি আইন ভাঙার দায়ে দিল্লি পুলিশে হাতে গ্রেফতারও হয়েছেন।

রাহুল গান্ধীর অভিযোগ রাফাল দূনীর্তি থেকে বাঁচার জন্য সিবিআই ডিরেক্টর অলোক ভার্মাকে সরানো হয়েছে । এদিকে আজ কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক অশোক গেহলট বলেন, “ভারতের প্রধান তদন্তকারী সংস্থা সিবিআই। তার ডিরেক্টরকে অবৈধ ও অসাংবিধানিকভাবে অপসারিত করা হয়েছে। মোদি-আমিত শাহরা এই অপসারণের মাধ্যমে ভারতকে লজ্জায় ফেলেছে।”

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment