আন্তর্জাতিক 

মহিলা সহকর্মীর যৌন হেনস্থার অভিযোগে ৪৮ জনকে ছাঁটাই করেছে গুগল

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক: ৪৮ জন  কর্মচারীকে ছাঁটাই করেছে ‘গুগল’ এ কথা প্রকাশ্যেই স্বীকার করে নিলেন সংস্থার সিইও। যেসব কর্মচারীকে ছাঁটাই করা হয়েছে তাঁদের বিরুদ্ধে গত দু’ বছরে মহিলা কর্মীদের যৌন হেনস্থার অভিযোগ উঠেছিল। এই কারণে চাকরি থেকে বরখাস্ত করার সঙ্গে সঙ্গে বাতিল করা হল চাকরি ছাড়ার পরের যাবতীয় সুযোগ-সুবিধেও। এই মর্মে ওই কর্মীদের কাছে ই-মেল পাঠিয়েছেন গুগল সিইও সুন্দর পিচাই। এই ৪৮ ‘গুগল কর্মীর মধ্যে ১৩ জন গুগলের সিনিয়র ম্যানেজার ছিলেন। একটি সংবাদমাধ্যমে ওঠা অভিযোগের উত্তর দিতেই এই পদক্ষেপ গুগল সিইও-র। সংবাদমাধ্যমটিতে অভিযোগ করা হয়েছিল মহিলাদের ওপর যৌন হেনস্থার মতো অপরাধ করা সত্বেও গুগল তার কর্মীদের প্রশ্রয় দিচ্ছে কোনো রকম ব্যবস্থা নিচ্ছে না।

প্রসঙ্গত নিউইয়র্ক টাইমসে এই অভিযোগ করা হয়েছিল। বলা হয়েছিল, ২০১৪ সালে গুগলের অ্যানড্রয়েড সফটওয়ারের এক্সিকিউটিভ ইন-চার্জ অ্যানডি রুবিন এক মহিলাকে যৌন হেনস্থা করেন। তারপর তাঁকে সংস্থা থেকে বরখাস্ত করা হলেও দেওয়া হয় চাকরি পরবর্তী যাবতীয় সুযোগ-সুবিধে হিসাবে দেওয়া হয় ৯ কোটি ডলারও। তারই জবাব দিতে গুগল সিইও এই ই-মেল পাঠান।

অন্য দিকে রুবিনের একজন মুখপাত্র স্যাম সিঙ্গার বলেন, রুবিন নিজের ইচ্ছায় চাকরি ছেড়ে ছিলেন। তাঁর কাছে যৌন হেনস্থা সম্পর্কিত কোনো অভিযোগ আসেনি। রুবিন যৌন হেনস্থা সম্পর্কিত এই অভিযোগ স্বীকার করে নিয়েও বলেন, এই ব্যাপারে সংস্থার তরফে কোনো কিছু জানানো হয়নি।

এ দিকে সুন্দর পিচাই রুবিনের বিষয়ে কোনো রকম প্রসঙ্গ উত্থাপন না করে বলেন, ২০১৫ সালে গুগল বেশ কিছু কঠোর নীতি নিয়েছে। তাতে উচ্চপদস্থ কর্মীদের সঙ্গে সংস্থার অন্য কর্মীদের কোনো রকম সম্পর্ক গড়ে উঠলেই তা জানাতে বলা হয়েছে, ইত্যাদি। তাঁরা কর্মীদের নিরাপদ ও সুস্থ কাজের পরিবেশ দেওয়ার ক্ষেত্রে দৃঢ় ভাবে অঙ্গীকার বদ্ধ।

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment