দেশ 

মহিলার চরিত্র নিয়ে কুমন্তব্য করার দায়ে বিজেপি কর্মীর বাড়ি বুলডোজার দিয়ে গুঁড়িয়ে দিল যোগী প্রশাসন

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : এক মহিলার চরিত্র নিয়ে কুমন্তব্য করার দায়ে উত্তরপ্রদেশে বিজেপি কর্মীর বাড়ি বুলডোজার দিয়ে ভেঙে দিল যোগি প্রশাসন।

নয়ডার ওই বিজেপি কর্মীর বিরুদ্ধে আবাসনের ভিতরে বেআইনি দখল এবং নির্মাণের অভিযোগ এনেছিলেন আবাসিকরা। শুক্রবার তা নিয়ে আবাসিকদের সঙ্গে বচসা চলাকালীন এক মহিলাকে হেনস্থা করেন তিনি। নারী-হেনস্থার অভিযোগে তাঁর বিরুদ্ধে এফআইআর করা হয় বিজেপি কর্মীর বিরুদ্ধে। পরে নয়ডার পুলিশ তাঁর বিরুদ্ধে গ্যাংস্টার আইনেও অভিযোগ দায়ের করে। এই আইনে অভিযুক্তের বাড়ি ভাঙতে পারে প্রশাসন।

ওই বিজেপি কর্মীর নাম শ্রীকান্ত ত্যাগী। তিনি নয়ডার গ্র্যান্ড ওমাক্সে অ্যাসোসিয়েশন অব অ্যাপার্টমেন্টের বাসিন্দা। মহিলাকে হেনস্থা করার পর তাঁর বাড়িতে বুলডোজার চালানোর পর প্রশ্ন উঠেছে তবে, হাথরস, উন্নাও কিংবা গোরক্ষপুরে একের পর এক ধর্ষণ এবং নারী-বিরোধী অপরাধের ঘটনায় দোষীরা ছাড় পেল কেন? বিরোধীদের প্রশ্ন, উন্নাওয়ে খোদ বিজেপির বিধায়কেরই নাম ছিল মূল অভিযুক্ত হিসেবে। হাথরসের ঘটনায় ধর্ষিতার পরিবারকে চোখ রাঙানোর অভিযোগ উঠেছিল পুলিশ এবং প্রশাসনের বিরুদ্ধেই। নয়ডার ঘটনায় অবশ্য প্রশাসন কোনও ব্যখ্যায় যায়নি।

বস্তুত, দ্বিতীয় বার ক্ষমতায় আসার আগে থেকেই অপরাধীদের শাস্তি দিতে বুলডোজার ব্যবহার করা শুরু করেছে যোগী সরকার। প্রথমে বেআইনি নির্মাণ ভাঙার কাজে ব্যবহার করা হলেও পরে অপরাধীদের ‘শাস্তি’ দিতেও ব্যবহার শুরু হয় বুলডোজারের।

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ