কলকাতা 

আবারও মুকুল-কৈলাসের ফোনের অডিও ক্লিপিং ফাঁস, ফোন ট্যাপিং-র অভিযোগে দিল্লি হাইকোর্টে মামলা করার হঁশিয়ারি মুকুলের,কলকাতার দুজন সাংবাদিক বাদে সব সাংবাদিকের ফোন ট্যাপ করা হয় অভিযোগ বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের

শেয়ার করুন
  • 12
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিনিধি : বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয়র সঙ্গে মুকুল রায়ের কথোপকথনের আরও একটি অডিও ক্লিপ সামনে এল।  তবে এবারও অডিও ক্লিপ সামনে আসার পর তাঁর ফোন ট্যাপ করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন মুকুল রায়। মঙ্গলবারই তিনি এনিয়ে দিল্লি হাইকোর্টে মামলা করবেন বলে জানিয়েছেন । একই সঙ্গে মুকুল রায় অভিযোগ করেন, কলকাতায় দুজন সাংবাদিক ছাড়া বাকি সব সাংবাদিকের ফোন ট্যাপ করা হয়।

রবিবার সকালেই মুকুল রায় ও কৈলাস বিজয়বর্গীয়র মধ্যে কথোপকথনের ক্লিপিংটি সোস্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়। এই অডিও ক্লিপিং থেকে জানা গেছে মুকুল রায়-কৈলাস বিজয়বর্গীয়র বলছেন, “একটি গুরুত্বপূর্ণ কথা বলার জন্য ফোন করেছি। ম্যাথু বিদেশ গেছেন। উনি আমাকে ফোনে বলছেন, ওঁর কাছে ২৪ ঘণ্টার একটি তথ্যচিত্র রয়েছে। সেটা যদি প্রকাশ্যে আনা হয় তাহলে তৃণমূল শেষ হয়ে যাবে।”

কৈলাস জানতে চান, “কত টাকা চাইছেন? উত্তরে মুকুল রায় বলেন, “২ কোটি। এর মধ্যে ৫০ লাখ টাকা অগ্রিম চাইছেন। হংকংয়ে পাঠাতে হবে। বাকিটা ২০ দিন পর দিতে হবে। যদি এটা সত্যি হয় আমি ঘরবাড়ি বিক্রি করেও টাকা জোগাড় করব। কিন্তু কী করে বিশ্বাস করা যায়? আমি ওঁকে আপনার সঙ্গে কথা বলতে বলছি। কথা বলার পর যদি আপনি সিগন্যাল দেন তাহলে আমরা অ্যাকশন নেব।”

কৈলাস বলেন, “এই জুয়াটা খেলা উচিত।” সহমত প্রকাশ করে মুকুলও বলেন, “জুয়া খেলব। কিন্তু, আপনার সঙ্গে কথা হওয়ার পর।” কৈলাস মুকুলকে বলেন, “২৬ তারিখে কলকাতায় যাচ্ছি। তখন কথা হবে।”

এই ক্লিপিং প্রকাশ্যে আসার পর সাংবাদিকদের মুকুল রায় বলেন , “এটা ফোন ট্যাপিংয়ের অভিযোগের প্রমাণ। আগামী মঙ্গলবার এনিয়ে দিল্লি হাইকোর্টে মামলা হবে।”
মুকুলকে পালটা প্রশ্ন করা হয়, কথপোকথনে একটা বড় অঙ্কের টাকার কথা শোনা যাচ্ছে ? মুকুল বলেন, “আমি বলেছি, যদি তৃণমূলের ক্ষতি হয় তাতে আমি আমার ঘরবাড়ি বেচেও টাকা জোগাড় করব।”


শেয়ার করুন
  • 12
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment