কলকাতা 

মহাত্মা গান্ধীই বিশ্বের রাজনীতিবিদদের বিশ্ব-শান্তি প্রতিষ্ঠার নতুন শিক্ষা দিয়ে গেছেন : সরদার আমজাদ আলী

শেয়ার করুন
  • 7
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বিশেষ প্রতিনিধি : মহাত্মা গান্ধীই বিশ্ববাসীর সামনে আন্দোলনের এক নয়া রূপ তুলে ধরতে সমর্থ হয়েছিলেন । তিনিই প্রথম দেখিয়েছিলেন, যুদ্ধ নয় , সশস্ত্র সংগ্রাম নয় ,শান্তিপূর্ণ গণ-আন্দোলনের মাধ্যমে দাবি আদায় করা যায় । অহিংসা আন্দোলনের মধ্য দিয়ে স্বৈরাচারি সরকারের পতন ঘটনোও সম্ভব । আক্ষরিক অর্থে মহাত্মা গান্ধী সমগ্র বিশ্বের গণ-আন্দোলন চরিত্রকেই পাল্টে দিয়েছেন । মঙ্গলবার গান্ধী জয়ন্তী উপলক্ষে বিধান রায় মেমোরিয়াল ট্রাষ্টের আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে বিশিষ্ট আইনজীবী ও প্রাক্তণ সাংসদ সরদার আমজাদ আলী এই মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন , সমগ্র বিশ্ব জুড়ে যুদ্ধ চলছে । একটা সময় মনে করা হত যুদ্ধের মাধ্যমে সমস্যার সমাধান বা আধিপত্য কায়েম করা সম্ভব । এখন আবার সমগ্র বিশ্বে আণবিক শক্তির কথা বলা হচ্ছে । অর্থাৎ যে দেশ আণবিক শক্তিতে শক্তিশালী সেই দেশেই এখন নিজেদের শ্রেষ্ঠ বলে মনে করে । ব্যাতিক্রম আমাদের ভারতবর্ষও নয় । আমাদের দেশও আণবিক শক্তিতে শক্তিশালী । কিন্ত এমনটা মহাত্মা গান্ধী চাননি । তিনি সারা জীবন ধরে অহিংসা আর অসহযোগ আন্দোলনের মধ্য দিয়ে প্রমাণ করে গেছেন এর মাধ্যমেই শান্তি আসতে পারে । তাই বিশ্বকে যদি শান্তি এবং সুস্থিতি রাখতে হয় তাহলে অবশ্যই গান্ধীজির আদর্শকেই আমাদের মেনে নিতে হবে ।

এদিন প্রদেশ কংগ্রেসের বিধান ভবনের সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন , সাংসদ প্রদীপ ভট্টাচার্য, অধ্যাপক পুলক চট্টোপাধ্যায় সহ অন্যান্যরা । বিশিষ্টদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, শুভঙ্কর সরকার , কামরুজ্জামান কামার ,মায়া ঘোষ প্রমুখ ।


শেয়ার করুন
  • 7
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment