দেশ 

ব্যাভিচারের শাস্তি কী এবার মহিলাদেরও, সুপ্রিম কোর্টের রায়ে দিকে তাকিয়ে দেশ

শেয়ার করুন
  • 10
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : সুপ্রিম কোর্ট  আধার কার্ডকে সাংবিধানিক বৈধতা দিলেও আধার আইনের বেশ কয়েকটি নিয়মকে পুরোপুরি খারিজ করে দিয়েছে। এবার বুধবার শীর্ষ আদালত ব্যভিচার নিয়ে রায় শোনাবে।সুপ্রিম কোর্টের তিন বিচারপতির বেঞ্চ, যাঁর নেতৃত্বে রয়েছেন বিদায়ী প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্র, এই সংক্রান্ত রায় নিয়ে সাংবিধানিক বেঞ্চের মতামত চেয়েছিলেন। ব্যভিচারে শাস্তিযোগ্য আইন সংবিধান সম্মত নয় বলে যে আবেদন করা হয়, তার প্রেক্ষিতে অগাস্ট মাসে রায় মুলতুবি রাখা হয়েছিল।

সংবিধানের ৪৯৭ নম্বর ধারার ব্যভিচার আইন মোতাবেক, কোনও বিবাহিতা মহিলা স্বামীর অসম্মতিতে কোনও পর পুরুষের সঙ্গে যৌন সম্পর্কে লিপ্ত হলে সেই পুরুষ শাস্তি পাওয়ার যোগ্য হন, মহিলা নন। ঘুরিয়ে বললে,মহিলার সম্মতি নিয়ে অন্য বিবাহিত মহিলার সঙ্গে যৌন সম্পর্ক করলে পুরুষের শাস্তি হয়। মহিলার নয়। ৪৯৭ নম্বর ধারার এই আইন বদলের দাবি জানিয়েই সর্বোচ্চ আদালতে মামলা হয়েছে। এই ধারাটিকে লিঙ্গ নিরপেক্ষ করার দাবি তোলা হয়েছে। অর্থাৎ আদালত রায় বদল করলে মহিলারাও শাস্তির আওতায় আসবে ।

যদিও কেন্দ্র সরকার এই আইনের বদলের বিরোধিতা করেছিল। যা নিয়ে আদালত প্রশ্ন তোলে। কেন আজকের যুগে পুরুষ-নারীর জন্য আলাদা নিয়ম হবে তা আদালত জানতে চায় ? ব্যভিচার ভারতে শাস্তিযোগ্য একটি অপরাধ। এই অপরাধে মূলত পুরুষেরই শাস্তি হয়। এর সর্বোচ্চ সাজা পাঁচ বছর পর্যন্ত হতে পারে। সঙ্গে জরিমানাও হতে পারে।

 

 


শেয়ার করুন
  • 10
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment