কলকাতা 

আচার্য ও রাজ্যপালের সামনেই শিক্ষামন্ত্রী ও উপাচার্যের কথা কাটাকাটি

শেয়ার করুন
  • 8
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বিশেষ প্রতিনিধি : আচার্য রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠীর সঙ্গে রাজ্যের সাত প্রথম সারির বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের বৈঠক হয় । এই বৈঠকে রাজ্যপাল, শিক্ষামন্ত্রীর উপস্থিতিতে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যকে নানা বিষযে প্রশ্ন করেন । আচার্যের সঙ্গে উপাচার্যদের বৈঠকে বেশ কিছু বিষয় আলোচনা হয়েছে৷ কিন্তু রাজ্যপাল তথা আচার্য  বিভিন্ন ইস্যুতে উপাচার্যদের সমালোচনা করেছেন ৷

আচার্যের প্রশ্নের মুখে পড়তে হয় যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সুরঞ্জন দাসকে ।  ভর্তি প্রক্রিয়ার কাজ শুরু করতে কেন দেরি হয়েছে তা তিনি জানতে চান, প্রবেশিকা পরীক্ষা নিয়ে যাদবপুরের উপাচার্যকে আচার্য বলেন, প্রবেশিকা পরীক্ষার সিদ্ধান্ত নিতে এত দেরি হল কেন ৷ দেরি না হলে ছাত্র বিক্ষোভ এড়ানো যেত।

প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অনুরাধা লোহিয়াকে হিন্দু হোষ্টেলের সংস্কার কেন দেরি হচ্ছে তা নিয়ে আচার্য জানতে চান ?  এছাড়া রাজ্যপাল তাঁকে প্রশ্ন করেন, হিন্দু হোস্টেলের সংস্কার সংস্কার সংক্রান্ত সমস্যা মিটছে না কেন? কবে মিটবে? বিশেষ সূত্রে জানা গেছে , এর উত্তরে নাকি উপাচার্য অনুরাধা লোহিয়া বলেন , হিন্দু হোষ্টেলের সংস্কারের দায়িত্বে আছে পূর্ত দপ্তর । একথা বলার সঙ্গে সঙ্গে শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‍হিন্দু হোষ্টলে রাজ্যের পূর্ত দপ্তর কোনো কাজ করছে না । এরপরেই উপাচার্য ও শিক্ষামন্ত্রীর মধ্যে কথা কাটাকাটি শুরু হয় । প্রেসিডেন্সির উপাচার্য তা মানতে চাননি ৷ তিনি নাকি পালটা মন্ত্রীকে বলেছেন, তার কাছে চিঠি আছে যে পূর্ত দফতরই হিন্দু হোস্টেলে কাজ করছে ৷ শেষ পর্যন্ত রাজ্যপালের হস্তক্ষেপে দুজনে শান্ত হন । অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যরাও আচার্যকে পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন দেন৷

 

 

 

 


শেয়ার করুন
  • 8
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment