দেশ 

মায়াবতীর চালে কংগ্রেসের স্বপ্ন কী ভঙ্গ হতে চলেছে ? আসন্ন বিধানসভায় দুই রাজ্যে কংগ্রেসের সঙ্গে জোট করবে না বিএসপি, ঘোষণা দলিত নেত্রীর

শেয়ার করুন
  • 5
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বিশেষ প্রতিবেদক : আশা দিয়ে শেষ পর্যন্ত মায়াবতী-ই পেছন থেকে ছুরি মারল কংগ্রেসের । অবশ্য এটাই মায়াবতীর কাছে প্রত্যাশিত ছিল । কংগ্রেস রাজনীতিবিদরা মায়াবতীর ধান্দাবাজি যে জানেন তা নয় কিন্ত তবু তাঁরা শেষ চেষ্টা করেছিলেন । কিন্ত রাহুল গান্ধীর সেই প্রচেষ্টা ব্যর্থ করে দিয়ে মায়াবতী আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে ছত্তিশগড় ও মধ্যপ্রদেশে কংগ্রেসের সঙ্গে জোট করবে না বলে জানিয়ে দিয়েছেন ।

অবশ্য ছত্তিশগড়ে প্রাক্তণ কংগ্রেসী মুখ্যমন্ত্রী অজিত যোগীর জনতা কংগ্রেসের সঙ্গে মায়াবতী জোট করবে বলে ঘোষণা করেছেন ।এই ঘোষণার ফলে কংগ্রেস অবশ্যই বিপাকে পড়ল সন্দেহ নেই। পাশাপাশি মধ্যপ্রদেশেও বিএসপি কংগ্রেসের সঙ্গে জোট বাঁধবে না বলে জানিয়ে দিয়েছেন। জানা গেছে,ছত্তিশগড়ে মোট ৯০টি বিধানসভা আসনের মধ্যে বিএসপি ৩৫টি আসনে ও ৫৫টি আসনে লড়বে  অজিত যোগীর জনতা কংগ্রেস। যদি এই জোট নির্বাচনে জেতে তাহলে অজিত যোগী মুখ্যমন্ত্রী হবেন বলেও ঘোষণা করা হয়েছে। অজিত যোগী ছিলেন ছত্তিশগড়ের প্রথম মুখ্যমন্ত্রী। ২০১৬ সালে কংগ্রেস থেকে বিতাড়িত হওয়ার পরে জনতা কংগ্রেস তৈরি করেন তিনি। গত ১৫ বছর ধরে বিজেপি ছত্তিশগড়ে ক্ষমতায় রয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী পদে কাজ করছেন রমন সিং।

মধ্যপ্রদেশেও বিএসপি-র সঙ্গে জোট করতে তৎপর ছিল কংগ্রেস। এদিন মধ্যপ্রদেশেও একা লড়ার কথা জানিয়ে দিয়েছেন দলিত নেত্রী মায়াবতী । ফলে ছত্তিশগড় ও মধ্যপ্রদেশে বিজেপি দল খানিকটা এগিয়ে গেল বলে রাজনীতিবিদ মনে করছেন । সম্প্রতি মধ্যপ্রদেশে কৃষক আন্দোলন ও দলিত আন্দোলনের জেরে শাসক বিজেপি ব্যাকফুটে । এখানে কংগ্রেস- বিএসপি জোট হলে বিজেপি-র ক্ষমতায় আসা কঠিন হত । মায়াবতীর আজকের ঘোষণার পর গেরুয়া শিবির খানিকটা উজ্জীবিত যে হবে তা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই । অন্যদিকে ,ছত্তিশগড়ে গত বিধানসভার নিরিখে সামান্য ভোটের ব্যবধানে বিজেপি ক্ষমতা দখল করতে পেরেছিল । সেটাও ছিল ভোট-ভাগাভাগির কারণে । এবার কংগ্রেস একা এবং জনতা কংগ্রেস-বিএসপি জোট হলে সুবিধা হবে বিজেপি-র ।

 


শেয়ার করুন
  • 5
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment