দেশ 

মুখ্যমন্ত্রীকে হত্যার ছক মায়ানমারের মাদক ব্যবসায়ীদের !

শেয়ার করুন
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিনিধি :  ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লবকুমার দেবকে হত্যার ছক করেছে মায়ানমারের মাদক পাচারকারীরা। এমন দাবি করলেন ত্রিপুরার প্রাক্তন মন্ত্রী তথা বর্তমান বিজেপি বিধায়ক রতন চক্রবর্তী । তাঁর দাবি, মায়ানমারের রাজধানী নয়পিডাউতে মাদকচক্রীরা বৈঠক করে বিপ্লববাবুকে সরিয়ে দেওয়ার ছক কষেছিল।

বিপ্লব দেব মুখ্যমন্ত্রী হয়ে আসার পর মাদকদ্রব্যের বিরুদ্ধে অপারেশন শুরু করেছিলেন। ইতিমধ্যে ত্রিপুরার নিরাপত্তাবাহিনী ৪১ হাজার কিলোগ্রাম মারিজুয়ানা, ৮০ হাজার বোতল অব্যবহৃত কাশির সিরাপ, ১ লাখ ৩৫ হাজার ট্যাবলেট (মায়ানমারের তৈরি ইউবাসহ), দুই কিলোগ্রাম হেরোইন এবং ৬২০ গ্রাম ব্রাউন সুগার এবং  ২৫০-এর বেশি ড্রাগ পেডলারকে আটক করেছে।

মঙ্গলবার বিজেপি-র সদর দপ্তরে একটি সাংবাদিক বৈঠকের আয়োজন করা হয়। সেখানে রতনবাবু বলেন, “কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক অত্যন্ত চিন্তিত। কারণ মাদক পাচারকারীরা মায়ানমারের রাজধানীতে একটি বৈঠক করেছিল। সেই বৈঠকে বিপ্লবকুমার দেবকে উৎখাত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।”

তিনি আরও বলেন, “মাদক পাচারকারীরা তাঁর জন্য মৃত্যুদণ্ড ঘোষণা করেছে। তাই, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীও জরুরি বৈঠকে বসেছিলেন। তিনি রাজ্যের স্বরাষ্ট্রবিভাগকেও বিষয়টি জানান।”

রতনবাবুর অভিযোগ, “পূর্বতন বামফ্রন্ট সরকার ও তাঁর নেতারা ড্রাগ মফিয়াদের সহায়তা করতেন। তাই, তারা মুক্তমনে রাজত্ব চালাতে পারত। ক্ষমতায় এসেই বিজেপি জোট সরকার ত্রিপুরাকে মাদকমুক্ত রাজ্য গঠনের ঘোষণা করেছেন। সেজন্যই মুখ্যমন্ত্রীকে হত্যার ছক কষা হচ্ছে।”

 

 

 


শেয়ার করুন
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment