দেশ 

বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রীর গণধর্ষণের অভিযোগ দ্বাদশ শ্রেণির ৪ ছাত্রের বিরুদ্ধে , গ্রেপ্তার ৯

শেয়ার করুন
  • 5
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

দেরাদুন,: দেরাদুনের একটি বোর্ডিং স্কুলে দশম শ্রেণির এক ছাত্রীকে(১৬) গণধর্ষণের অভিযোগ উঠলওই বিদ্যালয়ের দ্বাদশ শ্রেণির ৪ ছাত্রের বিরুদ্ধে। গতমাসে ঘটনাটি ঘটে নির্যাতিতা ও অভিযুক্তরা ওই স্কুলেরই পড়ুয়া। স্কুলের কর্মীরা প্রথমে ঘটনাটি ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করলেও চার ছাত্রকে আটক করেছে পুলিশ। এছাড়া পাঁচজন আধিকারিককেও গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাদের মধ্যে রয়েছে প্রিন্সিপাল, স্কুল কর্তৃপক্ষ ও হস্টেলের কেয়ারটেকার।

নির্যাতিতা ওই কিশোরী ও তার বোন হস্টেলেই থাকে। ধর্ষণের পর অসুস্থ হয়ে পড়ে সে। পরে বোনকে জানায়, ১৪ অগাস্ট তাকে তার সিনিয়ররা স্কুলের স্টোর রুমে ডেকে পাঠায় স্কুলের একটি অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি নিতে। সেখানে তার গণধর্ষণ করা হয়। শরীর ক্রমশ খারাপ হতে থাকলে মেডিকেল টেস্টে ধরা পড়ে সে গর্ভবতী।

পুলিশ জানিয়েছে, স্কুল কর্তৃপক্ষ ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে চেয়েছিল। মেয়েটি তাদের জানায়, সেইদিনই সে ঘটনাটি স্কুলের আয়াকে জানিয়েছিল। কিন্তু তারা তাকে বুঝিয়ে অভিযোগ দায়ের করতে বারণ করে। একমাস পর পুলিশ বিষয়টি সম্পর্কে অবগত হয়।

পুলিশ আরও জানিয়েছে, স্কুল কর্তৃপক্ষ মেয়েটির গর্ভপাত করানোরও চেষ্টা করে। তার জন্য পানীয়ের সঙ্গে মাদক মিশিয়ে তাকে দেওয়া হয়েছিল বলে অভিযোগ। নির্যাতিতা  দ্বাদশ শ্রেণির ৪জন ছাত্রের নাম বলেছে।

গণধর্ষণের খবর পেয়েই নির্যাতিতা ওই কিশোরীর মা ও বাবা বোর্ডিং স্কুলে পৌঁছায়। তাঁদের সঙ্গে ছিল পুলিশ ও শিশুকল্যাণ আধিকারিক। নির্যাতিতার বয়ান রেকর্ড করা হয়েছে। স্কুলের কর্মীদেরও জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে পুলিশ।


শেয়ার করুন
  • 5
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment