জেলা 

মুখ্যমন্ত্রীর কুরুচিকর ছবি সোস্যাল মিডিয়ায় পোষ্ট করে শ্রীঘরে বিজেপি কর্মী

শেয়ার করুন
  • 19
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিবেদক : বাংলার রাজনীতি এক নতুন সংস্কৃতির জন্ম দিয়েছে বিজেপি । বিশেষ করে রাজ্য বিজেপি-র সভাপতি পদে দিলীপ ঘোষ আসীন হওয়ার পর থেকেই বঙ্গ রাজনীতিতে কুরুচিকর সংস্কৃতি চালু হয়েছে । বিজেপি নানা ভাষায় এবং বিভিন্ন উপমা দিয়ে প্রায় মুখ্যমন্ত্রীকে কটাক্ষ করা হয়ে থাকে । এবার সব রকম শালীনতা সীমা অতিক্রম করল বিজেপি-র এক কর্মী । আরএসএসের মস্তিস্ক প্রসূত একটি দল বিশেষ কোনো গোষ্ঠীকে প্রশয় দিলেও তার মধ্যে শালীনতাবোধ থাকাটা স্বাভাবিক । কারণ আরএসএস দাবি করে থাকে তারা ভারতের চিরন্তন হিন্দু সংস্কৃতির রক্ষক । বাস্তবে দেখা গেল প্রকৃত হিন্দু সংস্কৃতিকে ধ্বংস করে চলেছে বিজেপি-র কর্মীরা । খোদ রাজ্যের মহিলা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের  আপত্তিকর ছবি পোস্ট করে গ্রেফতার হলেন এক বিজেপি কর্মী। পশ্চিম মেদিনীপুরের বিজেপি কর্মী বাবুয়া ঘোষ বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়ককে নিয়ে কুরুচিকর ছবি পোস্ট করেন।

এছাড়া মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়ে ব্যক্তিগত কুৎসা রটান হয় বলেও অভিযোগ।বাবুয়া নিজের ফেসবুক ওয়ালে ওই কুরুচিকর ছবি পোস্ট করেছিলেন। তারপর মুখ্যমন্ত্রীর নামে ব্যক্তিগত কুৎসা জারি রাখায় থানায় অভিযোগ দায়ের করেন জনৈক এক ব্যক্তি। সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই বাবুয়াকে গ্রেফতার করা হয় এবং তাঁর মোবাইলটি বাজেয়াপ্ত করা হয়। যে সমস্ত প্রোফাইল থেকে এ ধরনের কুৎসা রটানো হয়েছে, তাদের বিরুদ্ধেও যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।পশ্চিম মেদিনীপুরের শালবনির শৌলা গ্রামের বাসিন্দা বাবুয়া। তিনি বিজেপির সক্রিয় কর্মী। বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের সঙ্গেও তাঁর ছবি রয়েছে ফেসবুক ওয়ালে। নিজেকে তিনি বিজেপি কর্মী হিসেবেই পরিচয় দেন। এলাকাতেও তিনি বিজেপির কর্মী হিসেবে পরিচিত। পুলিশ জানিয়েছে, যে-ই সোশ্যাল মিডিয়াকে হাতিয়ার করে এই ধরনের কুৎসা করবে, তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবি বিকৃত করে কুৎসা-অপপ্রচার বাড়ছে, যার জেরে উদ্বিগ্ন প্রশাসনও।

 


শেয়ার করুন
  • 19
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment