জেলা 

দল ও জনপ্রতিনিধিদের দূনীর্তি মুক্ত করতে অনুব্রতের নয়া দাওয়ায়

শেয়ার করুন
  • 8
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিনিধি : পঞ্চায়েত স্তরে দূনীর্তি হচ্ছে এখবর বিরোধীরা ফলাও করে প্রচার করে থাকে । কিন্ত শাসক দলের পক্ষ থেকে তা স্বীকার করা হয় না । ফলে বিচার করার দায়ও থাকে না । কিন্ত এবার পঞ্চায়েত বোর্ড গঠনের দিনথেকে বীরভুম জেলার তৃনমূল সভাপতি নিদান দিয়েছেন এক বছরের মধ্যে যদি কেউ দূনীর্তি করে তা হলে তার পদ কেড়ে নেওয়া হবে ।

সোমবারবোলপুরের গীতাঞ্জলি প্রেক্ষাগৃহে দলের জেলা কমিটির বৈঠকেই স্থির হয় বীরভূমের সমস্ত পঞ্চায়ত সমিতির সভাপতি ও সহকারী সভাপতিদের নাম। ২৩ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হবে বোর্ড গঠন। তার আগেই সাবধান করে দিলেন অনুব্রত মণ্ডল। তিনি যে কোনওরকম দুর্নীতি মানবেন না, তাও স্পষ্ট করে দিলেন। অনুব্রত মণ্ডল সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বলেন, এদিন পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি ও সহকারী সভাপতিদের নাম ঘোষণার পাশাপাশি তাঁদের বার্তা দেওয়া হয় কোনও রকম দুর্নীতি বরদাস্ত করা হবে না। কেউ যদি দুর্নীতি করে তবে প্রদেশকে জানাব। দলকে জানিয়ে তাঁকে সরিয়ে দেওয়া হবে দায়িত্ব থেকে।

অনুব্রতবাবু বলেন, গ্রাম পঞ্চায়েত গঠন শান্তিপূর্ণভাবেই হয়েছে। জেলা পরিষদের তালিকা অনুমোদনও হয়ে গিয়েছে। ২৩ সেপ্টেম্বরের পরই তা ঘোষনা করা হবে। উন্নয়নমূলক কাজ বাকি রয়ে গিয়েছে। তাই সবাইকে কাজ করতে বলেছি। বলেছি, মানুষের জন্য কাজ করো। কোনও দুর্নীতি চলবে না।

উল্লেখ্য, এর আগে অনুব্রত মণ্ডল সোজাসাপ্টা হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন, পঞ্চায়েতের বোর্ড গঠন নিয়ে গন্ডগোল করলে, জেল কাটিয়ে ছাড়বেন অঞ্চল প্রেসিডেন্টদের। আর ব্লক প্রেসিডেন্টদের সাসপেন্ড করবেন। কোনও গন্ডগোলের দায় আর তিনি নেবেন না, সাফ জানিয়ে দেন তিনি। এবার থেকে যাবতীয় দায় নিতে হবে ব্লক ও অঞ্চল নেতৃত্বকেই।


শেয়ার করুন
  • 8
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment