কলকাতা 

রাজ্যে একের পর এক ব্রিজ ভাঙছে , বাজার পুড়ে ছাই হয়ে যাচ্ছে,তৃণমূল সরকারের কবে ঘুম ভাঙবে ? বাগরি মার্কেট অগ্নিকান্ডে প্রতিক্রিয়া অধীরের

শেয়ার করুন
  • 8
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিনিধি : “মমতা ব্যানার্জি কলকাতাকে লন্ডন বানাবে বলে বাংলার মানুষকে স্বপ্ন দেখিয়েছিল। আজ সেই কলকাতা লন্ডন না হলেও লন্ডভন্ডের শহরে রূপান্তরিত হয়েছে। আর এত পুলিশ পুলিশ করলে উনি একদিন নিজেই ফুলিশ হয়ে যাবেন।” কলকাতার বাগরি মার্কেট অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ করলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরি।

অধীর চৌধুরি আরও বলেন, “রাজ্যে একের পর এক ব্রিজ ভেঙে যাচ্ছে। একের পর এক অট্টালিকায় আগুন লাগছে। একের পর এক বাজার ছাই হয়ে যাচ্ছে। তৃণমূল সরকারের কবে ঘুম ভাঙবে সেটা আমরা জানি না। কিন্তু, ততদিনে আর কত অগ্নিকাণ্ড ও সেতু ভঙ্গ দেখতে হবে, সেটাই বাংলার মানুষকে এখন ভাবতে হচ্ছে। একটা করে দুর্ঘটনা ঘটছে আর একটা করে নতুন কমিটি তৈরি হচ্ছে। আর কমিটি গড়ে সেই বিষয়টিকে ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে। আগুন নিয়ন্ত্রণে দমকল, পুলিশ ব্যর্থ হলেও তিনি (মুখ্যমন্ত্রী) তাদের প্রশংসায় পঞ্চমুখ।”

অধীর বাবু বলেন, “যদি ইচ্ছা থাকে তো উপায় হয়। বাংলার সরকারের সেই ইচ্ছাটাই নেই। কেন বাগরি মার্কেটে আগুন লাগল তা জানার জন্য এবার একটা কমিটি তৈরি হবে। আবার বাংলার মানুষ জ্ঞান শুনবেন। আবার সব ধামাচাপা পড়ে যাবে। বাংলার মুখ্যমন্ত্রী সব ব্যাপারে বিশেষজ্ঞ। সে বলে দেবে কেন সেতু ভঙ্গ হয়েছে। সে বলার পর তার লাইনেই তদন্ত শুরু হচ্ছে। এবার সে বলে দেবে কেন অগ্নিকাণ্ড হয়েছে তারপর সেই লাইনে তদন্ত শুরু হবে। সারা বাংলায় আজ একটা অরাজকতা চলছে।”

অধীর আরও বলেন, “কলকাতার বাগরি মার্কেট জ্বলছে। ২০ ঘণ্টা পার হয়ে গেল, তবু এখনও আগুন নেভানো যাচ্ছে না। পাশের বিল্ডিংগুলিতে আগুন ছড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা বাড়ছে। আগুন নেভানোর ব্যবস্থা যথেষ্ট নয়। তাই আগুন নিভছে না। ভাবতে অবাক লাগে, দিদি ইতালি, জার্মানি যাচ্ছেন। বিজ়নেস মিট! আর এদিকে এতদিনের বিজ়নেস সেন্টার বাগরি মার্কেটের আগুন নেভাতে ল্যাজে গোবরে তাঁর ডিজ়াস্টার ম্যানেজমেন্ট। Nero fiddled while Rome burned. বাগরি মার্কেট পুড়ছে আর আধুনিক নিরো ইট্যালি, জার্মানি ঘুরছেন।

গতকাল রাত পৌনে তিনটে নাগাদ বড়বাজারের বাগরি মার্কেটে আগুন লাগে। দমকলের ৩০টি ইঞ্জিন আগুন নেভানোর চেষ্টা করছে। ধোঁয়ায় ভরে রয়েছে এলাকা। ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কোনও মৃত্যুর কোনও খবর পাওয়া যায়নি। দমকল অধিকর্তা জগমোহন জানিয়েছেন, আগুন সম্পূর্ণভাবে নিয়ন্ত্রণে আনতে ৪৮ ঘণ্টা সময় লাগবে।

 

 


শেয়ার করুন
  • 8
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment