কলকাতা 

কলকাতার মেয়র পদে ফের বসতে চলেছেন ফিরহাদ হাকিম?

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সেখ ইবাদুল ইসলাম : মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত ফিরহাদ হাকিমের উপরেই সবচেয়ে বেশি আস্থা রাখলেন দলনেত্রী। প্রবীণ রাজনীতিবিদ ও রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় এর মৃত্যুর পর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অনেকটাই অসহায় বোধ করছেন। কারণ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে সুব্রত মুখোপাধ্যায় একজন সাধারন মন্ত্রী ছিলেন না তিনি ছিলেন বিশেষ পরামর্শদাতাও। সদ্যসমাপ্ত  বিধানসভা নির্বাচনের সময় প্রথম সারির নেতারা যখন দল ছেড়ে বেরিয়ে যাচ্ছেন ঠিক সেই সময় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে একমাত্র অবলম্বন ছিলেন দুই বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ একজন হলেন সুব্রত মুখোপাধ্যায় অন্যজন হলেন ফিরহাদ হাকিম।

বিধানসভা নির্বাচনে বিপুল জয়ের নেপথ্যে এই দুই নেতার পরামর্শ এবং মমতার পাশে দাঁড়িয়ে এঁরা যেভাবে বিজেপিকে আক্রমণ করেছেন শানিত ভাষায় তা অবশ্যই ইতিহাস হিসাবে থেকে যাবে। আজ সুব্রত মুখোপাধ্যায় নেই কিন্তু এখনো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছায়া সঙ্গী হিসাবে রয়েছেন ফিরহাদ হাকিম। তাই নানা প্রচারণা সত্ত্বেও দলের একটা অংশ ফিরহাদকে পুর নির্বাচনে প্রার্থী করার বিপক্ষে মত প্রকাশ করার পরও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ফিরহাদেই আস্থা রাখলেন। তবে এ কথা স্পষ্ট করেই বলা যায় পুরসভার নির্বাচনের পর তৃণমূল কংগ্রেস কলকাতা পুরসভায় যে পুনরায় বিজয়ী হবে তা নিয়ে কোন সন্দেহ নেই । মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যদি কলকাতা পুরসভার মেয়র পদে কোন মহিলাকে বসাতে চান তাহলে আলাদা কথা এর বাইরে যদি কেউ মেয়র হন তবে অবশ্যই ফিরহাদ হাকিম গুরুত্ব পাবেন বলে রাজনৈতিক মহল মনে করছে।

আর এই কারনেই ফিরহাদ হাকিমকে পুর নির্বাচনে প্রার্থী করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে যারা দীর্ঘদিন কাজ করেছেন তাদের মধ্যে অবশ্যই ফিরহাদ হাকিম আছেন এবং থাকবেন বলে রাজনৈতিক মহল মনে করছে। সেই কারণেই ফিরহাদকে কলকাতা পুরসভার মেয়র পদে দেখলে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না। আর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে এই সাহসী সিদ্ধান্তটা যদি নিতে পারেন তাহলে এই রাজ্যের তথাকথিত ধর্মনিরপেক্ষ রাজনৈতিক দলগুলোর কাছে একটা সংকেত দিতে তিনি পারবেন।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সম্পর্কে বামেরা কিংবা কংগ্রেস বলে থাকে তিনি নাকি বিজেপির সঙ্গে সেটিং করেন। তবে একথা অস্বীকার করার উপায় নেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একমাত্র নেত্রী যিনি স্বাধীনতার পর কলকাতা পুরসভার মেয়র পদে এবং ডেপুটি মেয়র পদে মুসলিম ব্যক্তিত্ব কে বসিয়েছিলেন। আর কংগ্রেসের কথা বলবেন বামেদের কথা বলবেন? কংগ্রেস তো সম্প্রতি কলকাতা পুরসভার নির্বাচন পরিচালনা করার জন্য যে পর্যবেক্ষক কমিটি করেছে সেই কমিটিতে কোন মুসলিম প্রতিনিধি রাখেনি। আর ধর্মনিরপেক্ষতার রক্ষক হিসেবে ঘোষিত ৩৪ বছর কলকাতা পুরসভার মেয়র পদ তো দূরের কথা ডেপুটি মেয়র পদে কোন মুসলিম ব্যক্তিত্বকে বসায়নি।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এখানেই অনন্যা। ফিরহাদ হাকিমকে যদি দ্বিতীয়বারের জন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মেয়র পদে বসান তাহলে স্বাধীনোত্তর ভারতবর্ষে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একটা ইতিহাস সৃষ্টি করবেন বলে রাজনৈতিক মহল মনে করছে।

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ