দেশ 

মুক্ত চিন্তা না থাকলে গণতন্ত্র অর্থহীন, দেশের সম্বন্ধে বা তার কোনও অংশ নিয়ে সমালোচনা করার অর্থ দেশদ্রোহিতা হতে পারে না : আইন কমিশন

শেয়ার করুন
  • 11
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিনিধি : দেশের সরকারের মতের সঙ্গে মেলে না বা সরকারের সমালোচনা করে কোনো মতপ্রকাশকে দেশদ্রোহিতা বলা যায় না বলে, আইন কমিশন স্পষ্ট ভাষায়  জানিয়ে দিয়েছে। দেশদ্রোহিতার অভিযোগ নিয়ে একটি নথিতে আইন কমিশনের প্রধান সুপ্রিম কোর্টের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি বলবীর সিং চৌহান বলেছেন,একমাত্র হিংসার পথে অবৈধভাবে সরকারকে উৎখাত করার চেষ্টা করা হলে তবেই তা দেশদ্রোহিতা।

কমিশন বলেছে, ভারতীয় দণ্ডবিধির ১২৪এ ধারায় দেশদ্রোহিতার যে সংঞ্জা নির্ধারণ করে তাকে অপরাধ বলা হয়ে থাকে তার সংশোধন করা উচিত। কেননা, যারা এই ধারার রূপকার সেই ব্রিটিশরাই ১০ বছর আগে এই ধারাটিকে তাদের দেশে বিলোপ করেছে। তাই এই ধরনের দানবীয় আইনের উল্লেখ করার সময় ইংল্যান্ডের দৃষ্টান্ত তুলে না ধরাই উচিত।

ওই আলোচনাপত্রে ভারতের মতো বৃহত্তম গণতান্ত্রিক দেশে দেশদ্রোহিতার সংজ্ঞা বদলানো উচিত বলে মত দেওয়া হয়েছে। সংবিধানের মৌলিক অধিকার বাক্ ও চিন্তার স্বাধীনতা। গণতন্ত্রের তা অবিচ্ছেদ্য অংশ। মুক্ত চিন্তা না থাকলে গণতন্ত্র অর্থহীন। দেশের সম্বন্ধে বা তার কোনও অংশ নিয়ে সমালোচনা করার অর্থ দেশদ্রোহিতা হতে পারে না।

সম্প্রতি দেশের বেশ কয়েকজন প্রথম সারির বুদ্ধিজীবী প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার ষড়যন্ত্রে জড়িত সন্দেহে গ্রেপ্তার করার পর , সুপ্রিম কোর্ট

 এ সম্পর্কে মন্তব্য করতে গিয়ে বলেছিলেন ভিন্ন মত গনতন্ত্রে সেফটি ভালভ হিসেবে কাজ করে, সেফটি ভালভ না থাকলে প্রেসার কুকুারে তো বিস্ফোরণ হবেই । আইন কমিশনও সুপ্রিম কোর্টে এই পর্যবেক্ষণের সঙ্গে সহমত পোষণ করেছে । এবার প্রশ্ন সংবিধানে বাক-স্বাধীনতার কথা আছে কিন্ত সরকারী চাকরিজীবী সেই স্বাধীনতা কেন পাবে না ? উত্তরপ্রদেশের এক আইএএস অফিসার দেশবাসীর কাছে এই প্রশ্ন রেখেছেন।

শেয়ার করুন
  • 11
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment