দেশ 

দলিত সংগঠনের ডাকা ভারত বনধকে কেন্দ্র করে অশান্তি রাজ্যে রাজ্যে

শেয়ার করুন
  • 17
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিনিধি : তপশিলি জাতি উপজাতিদের নির্যাতন বন্ধের জন্য তৈরি আইন সংশোধনের বিরুদ্ধে ডাকা ভারত বনধে গণ্ডগোল বিজেপি শাসিত মধ্যপ্রদেশ এবং নীতীশ কুমারের রাজ্য বিহারে। অগাস্টে এই বিল সংসদে পাশ হয়েছে। যার বিরুদ্ধে বেশ কিছু সংগঠন এই বৃহস্পতিবার এই বনধের ডাক দিয়েছে। ৬ অগাস্ট লোকসভায় এসসি এসটি ( প্রিভেনশন অফ অ্যাট্রোসিটিস) অ্যামেন্ডমেন্ট বিল পাশ হয়েছে।

আজ বনধের দিনে মধ্যপ্রদেশের রেওয়ায় টায়ারে আগুন লাগিয়ে রাস্তায় যান চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়। এদিকে গণ্ডগোলের সম্ভাবনার দিকে লক্ষ্য রেখে মধ্যপ্রদেশ জুড়ে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। গোয়ালিয়র-চম্বল এলাকার মোরেনা, শিবপুরি, ভিন্দ এবং অশোকনগর জেলায় ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। মধ্যপ্রদেশের ৩৫ টি সংগঠন এই বনধের ডাক দিয়েছে।

বিহারে নওয়াদায় পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ হয় বিক্ষোভকারীদের। সেখানে দশ পুলিশকর্মী আহত হয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। আরায় পুলিশ নির্মমভাবে বিক্ষোভকারীদের মারধর করে বলে অভিযোগ। বিহারের লক্ষ্মীসরাইয়ে বিক্ষোভকারীরা বিজেপির পতাকায় আগুন লাগিয়ে দেয়।

ভারত বনধের ডাকে লখনৌতেও দোকানপাট ছিল বন্ধ। বিভিন্ন জায়গায় বিক্ষোভকারীরা বিক্ষোভও দেখান। এদিকে রাজনৈতিক মহলের খবর অনুযায়ী, এস এসটিদের এই আইন নিয়ে বিজেপিও ধন্ধে পড়েছে। কেননা তারা মূলত উচ্চবর্ণের ভোট পয়ে এসেছে। যা এই মুহূর্তে দোদুল্যমান বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের একাংশ।

অন্যদিকে উত্তর প্রদেশে দলিতদের বেশিরভাগই ভোট দেন বিএসপিকে। নির্বাচন হতে যাওয়া মধ্যপ্রদেশে উচ্চবর্ণের মানুষরা এই আইনের বিরুদ্ধে পথে নেমেছেন।

 

 


শেয়ার করুন
  • 17
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment