দেশ 

এনসিবি দপ্তরে শাহরুখ পুত্রের সঙ্গে সেলফি তোলা ব্যক্তির বিরুদ্ধে লুকআউট নোটিশ জারি করল মহারাষ্ট্র পুলিশ কেন জানেন ? জানতে হলে ক্লিক করুন

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক: শাহরুখ খানের পুত্র আরিয়ান খান কে প্রমোদতরী থেকে যিনি গ্রেপ্তার করেছিলেন তিনি এনসিবি আধিকারিক নন বলে জানা গেছে। তবে ওই ব্যক্তি কে যিনি এনসিবি অফিসে বসে শাহরুখ পুত্রের সঙ্গে সেলফি তুলে ছিলেন তা নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে মহারাষ্ট্র সরকার।ভাইরাল হওয়া ওই সেলফিতে থাকা ব্যক্তিকেই লুকআউট নোটিস জারি করল মহারাষ্ট্রের পুণে থানার পুলিশ।

পুণের (Pune) পুলিশ কমিশনার অমিতাভ গুপ্তা জানান, ভাইরাল হওয়া সেলফিতে থাকা ওই ব্যক্তির নাম কেপি গোসাভি। ২০১৮ সালে তার বিরুদ্ধে ফরাসখানা থানায় আর্থিক প্রতারণা মামলা দায়ের হয়। অভিযোগ দায়ের করেন চিন্ময় দেশমুখ। তিনি কেপি গোসাভির বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন। গোসাভি নিজেকে বিজেপি (BJP) কর্মী দাবি করেন।

চিন্ময়ের দাবি, ২০১৮ সালে সোশ্যাল মিডিয়ায় (Social Media) একটি চাকরি সংক্রান্ত বিজ্ঞাপন করেন তিনি। ওই বিজ্ঞাপনেই মালয়েশিয়ায় চাকরির সুযোগ দেওয়া হবে বলেই উল্লেখ করা হয়। তবে তার বিনিময়ে টাকাও দাবি করা হয়। চিন্ময়ের দাবি, তিনি কেপি গোসাভিকে ৩ লক্ষ টাকা দিয়েছিলেন। গোসাভি দাবি করেছিলেন ওই টাকার বিনিময়ে মালয়েশিয়ায় চাকরির সুযোগ পাবেন চিন্ময়। তবে ১৪ দিন কেটে গেলেও চাকরি পাননি চিন্ময়। এমনকী ৩ লক্ষ টাকাও ফেরত পাননি বলেই অভিযোগ। এই ঘটনায় গোসাভির বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৪২০ ধারায় অভিযোগ দায়েরও হয়। ওই মামলাতেই গোসাভির (KP Gosavi) বিরুদ্ধে লুকআউট নোটিস জারি করা হয়।

এনসিবি সূত্রে খবর, গত ২ অক্টোবর কর্ডেলিয়া প্রমোদতরীর রেভ পার্টিতে (Rave Party) ছিলেন কেপি গোসাভিও। আরিয়ানের বিরুদ্ধে তাকেই আরিয়ানের বিরুদ্ধে পক্ষপাতহীন সাক্ষী হিসাবে ভেবে রেখেছিল এনসিবি। কিরণ বর্তমানে পলাতক। যাতে গোসাভি দেশ ছেড়ে পালাতে না পারেন তাই তার বিরুদ্ধে লুকআউট নোটিস জারি হয়।

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ