কলকাতা 

মুখে হরি হরি করছে, আর মানুষ খুন করছে , সিপিএমের হার্মাদরাই এখন বিজেপির জল্লাদে রূপান্তরিত হয়েছে দলের ছাত্র সমাবেশ থেকে বিজেপিকে তোপ মমতার

শেয়ার করুন
  • 15
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিনিধি : মঙ্গলবার কলকাতায় গান্ধীমূর্তির পাদদেশে ছাত্র সমাবেশ থেকে মমতার বার্তা, সারা দেশে অঘোষিত জরুরি অবস্থা চালাচ্ছে বিজেপি।বিজেপিকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করে তিনি বলেন, মুখে হরি হরি করছে, আর মানুষ খুন করছে। বিজেপির বিভাজন  রাজনীতিকে এই ভাষাতেই আক্রমণ করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।তিনি সাম্প্রতিক ঘটনাবলী প্রসঙ্গ তুলে বলেন, উত্তরপ্রদেশে একের পর এক পিটিয়ে খুন করা হচ্ছে।  আবার মানুষ যখন বন্যায় বিপন্ন তখন এই বিজেপিই স্থির করে দিচ্ছে কে বন্যাত্রাণে সাহায্য করবে, আর কে করবে না। এই সরকার তো ইমার্জেন্সির ঠাকুরদাদা। এরা আবার ইন্দিরা গান্ধীর ইমার্জেন্সির কথা বলে।

এদিন ছাত্র সমাবেশ থেকে রাজ্যে পঞ্চায়েত বোর্ড গঠন নিয়ে বাংলার বিভিন্ন প্রান্তে যে খুনোখুনির রাজনীতির জন্য বিজেপির  দিকে আঙুল তোলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, পাহাড়ে অশান্তি লাগিয়েছিল, এখন জঙ্গলমহলে দুটো আসন পেয়ে রাজ্যে খুনোখুনি শুরু করেছে ওঁরা। জঘন্য ষড়যন্ত্র চলছে, কুৎসা চলছে। এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে। এ প্রসঙ্গে তিনি দলীয় ছাত্র নেতাদের বার্তা দেন, ওদের ফেসবুক টুইটার পোস্ট কেউ বিশ্বাস করবেন না। ওরা সোশাল মিডিয়াকে মাধ্যম করে মিথ্যার বেসাতি করছে।

মুখ্যমন্ত্রী এদিনের অনুষ্ঠান থেকে বিজেপিকে দ্ব্যর্থহীন ভাষায় আক্রমণ করেন। তিনি বলেন, সিপিএমের হার্মাদরাই এখন বিজেপির জল্লাদে রূপান্তরিত হয়েছে। বিজেপির আমলে দাঙ্গার দাম বেড়ে গিয়েছে। সেই কারণেই বড় বড় জালিয়াতির ঘটনা ঘটেছে। বিজেপির আমলে সবথেকে বড় ব্যাঙ্ক জালিয়াতির ঘটনা ঘটেছে। ১৪.৭ লক্ষ কোটি টাকার ব্যাঙ্ক জালিয়াতি হয়েছে। বিজেপি নিশানা করে তাঁর বার্তা, অটলবিহারীর মতো মানুষের আদর্শ নিয়ে ছিনিমিনি খেলছে বর্তমান বিজেপি নেতৃত্ব। বাজপেয়ীজিকে নিয়ে যা চলছে, তা অত্যন্ত অসম্মানজনক। শুধু অটলজিকেই নয়, এঁরা অমর্ত্য সেনের মতো মানুষকেও অসম্মান করেছেন। তাঁকে নালন্দা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সরিয়ে দিয়েছে বিজেপি। এই বিজেপিকে হটাতে হবে।


শেয়ার করুন
  • 15
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment