দেশ 

আরএসএসের বিশেষ সভায় ভিন্ন মতাদর্শের রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বদের আমন্ত্রণ জানাতে চলেছে সংঘ

শেয়ার করুন
  • 8
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিনিধি : হিন্দুত্ববাদী সংগঠন আরএসএস এবার তাদের চিরাচরিত ঐতিহ্য ভেঙে ভিন্ন মতের মানুষদের তাদের সভায় আমন্ত্রণ জানাতে উদ্যোগ নিয়েছে । আগামী ১৭ ও ১৯ সেপ্টেম্বর আরএসএসের পক্ষ থেকে দিল্লির বিঞ্জান ভবনে এক লেকচার সিরিজের আয়োজন করা হয়েছে । সেখানে দেশের সব কটি প্রথম সারির রাজনৈতিক দলকে আমন্ত্রণ জানাতে চলেছে আরএসএস। সংঘ নেতা অরুণ কুমার বলেন, “ওই অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন সংঘ প্রধান মোহন ভাগবত। লেকচারের বিষয় ভারতের ভবিষ্যৎ : আরএসএস দৃষ্টিভঙ্গি।”

বিশেষ সূত্রে জানা গেছে, এই সভায় কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীকে আমন্ত্রণ করা হতে পারে। একইসঙ্গে অন্য বিরোধী দলের নেতাদেরও বক্তা হিসেবে আমন্ত্রণ করা হবে । এদের মধ্যে সিপিএমের সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরিকে ডাকতে পারে আরএসএস।

আরএসএস চাইছে তাদের চিন্তাভাবনা নিয়ে দেশজুড়ে বির্তক হোক সেই লক্ষ্যে এই আলোচনা সভা বলে জানা গেছে। তবে এই মঞ্চে রাহুল গান্ধীকে বক্তা হিসেবে আমন্ত্রণ করা হবে কিনা এ বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে সংঘ নেতা অরুণ কুমার বলেন, “কাকে আমন্ত্রণ জানানো হবে আর হবে না, সেটা আমাদের ব্যাপার। এটা আমাদের উপর ছেড়ে দেওয়াই ভালো। তবে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের, বিভিন্ন ধর্মের ও বিভিন্ন মতাদর্শের মানুষকে এই লেকচারে আমন্ত্রণ জানানো হবে।”

উল্লেখ্য, চলতি বছরের জুন মাসে নাগপুরে সংঘের তরফে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল। সেখানে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জিকে। প্রণববাবু সেই অনুষ্ঠানে গিয়েছিলেন। যদিও তাঁর অনুষ্ঠানে যাওয়া একেবারেই ভালো চোখে দেখেনি কংগ্রেস নেতৃত্ব। কিন্তু, ওই বিষয় নিয়ে তখন কোনও মন্তব্য করতে দেখা যায়নি রাহুল গান্ধিকে। তবে বিষয়টি নিয়ে টুইটারে ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন একাধিক কংগ্রেস নেতা। সম্প্রতি লন্ডনে একটি অনুষ্ঠানে সংঘের মতাদর্শকে মুসলিম ব্রাদারহুডের সঙ্গে তুলনা করেছিলেন রাহুল। তাঁর এই মন্তব্য ঘিরে যথেষ্ট বিতর্কও হয়। তবে সংঘ আমন্ত্রণ রাহুল গান্ধীকে করবে কি না তা নিয়ে এখন্ও ধোঁয়াশা রয়েছে । আবার সংঘ আমন্ত্রণ করলেও রাহুল গান্ধী সেই অনুষ্ঠানে যান কিনা সেদিকেই তাকিয়ে রয়েছে ১২৫ কোটি ভারতবাসী ।

 


শেয়ার করুন
  • 8
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment