দেশ 

লোকসভা নির্বাচন ইভিএমে নয়, ব্যালটে করার দাবি জানাল তৃণমূল, প্রচার শেষে সোস্যাল মিডিয়ায় প্রচার চালানোর উপর এবার থেকে নিষেধাঞ্জা কমিশনের

শেয়ার করুন
  • 12
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিনিধি : লোকসভা নির্বাচনের প্রস্তুত্তি শুরু করে দিল জাতীয় নির্বাচন কমিশন। সোমবার দিল্লিতে নির্বাচন কমিশনের সদর দপ্তরে সর্বদল বৈঠকের আয়োজন করে কমিশন। সেখানে নির্বাচনে প্রার্থীদের টাকা খরচ থেকে শুরু করে সোস্যাল মিডিয়ায় প্রচারের জন্য সময় সীমা বেধে দেওয়ার প্রস্তাব করা হয়েছে । অন্যদিকে তৃণমূল কংগ্রেস নির্বাচন কমিশনের কাছে প্রস্তাব রাখে যে ইভিএম নয় , আগামী লোকসভা নির্বাচন করতে হবে ব্যালটে। তৃণমূলের এই প্রস্তাবকে সমর্থন করেছে আপ সহ বেশ কয়েকটি বিরোধী রাজনৈতিক দল। সূত্র জানাচ্ছে, নির্বাচন প্রক্রিয়া দুর্নীতিমুক্ত করতে সরকারি খরচে নির্বাচন করার প্রস্তাবও দেওয়া হয়েছে তৃণমূলের তরফে।

কমিশনের সচিব পবন দিওয়ান জানিয়েছেন, লোকসভা এবং একাধিক রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচন স্বচ্ছভাবে করতে আজ  সোমবার সর্বদল বৈঠক ডাকা হয়েছিল। বৈঠকে ছিলেন ৭টি জাতীয় এবং ৫১টি অনুমোদিত রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধিরা।

সূত্রের খবর, আগামী নির্বাচনগুলিতে আইনসভায় মহিলাদের প্রতিনিধিত্ব সুনিশ্চিত করতে এবং নির্বাচনে অর্থ খরচে স্বচ্ছতা আনার বিষয়ে বৈঠকে জোর দিয়েছে কমিশন। বৈঠকে তৃণমূলের তরফে উপস্থিত দুই প্রতিনিধি সুব্রত বক্সি এবং কল্যাণ বন্দোপাধ্যায় বলেন, নির্বাচনে দলগুলি যে অর্থ ব্যয় করবে, তা সরকার থেকে দেওয়া হোক। এতে নির্বাচন ঘিরে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের খরচ নিয়ে যে প্রশ্ন ওঠে, তা আর উঠবে না। ফলে দুর্নীতি কমবে।

এদিন বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলির পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়, ভোটের সময় দেখা গেছে, প্রচারের সময়সীমা শেষ হয়ে যাওয়ার পরেও সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচার চালানো হয়েছে। অতীতে এনিয়ে বেশ কিছু অভিযোগও জমা পড়েছিল নির্বাচন কমিশনে। কমিশন জানিয়েছে, এবার তারা এই বিষয়টিতে নজর দেবে। সম্প্রতি এবিষয়ে নজর দেওয়ার কথা জানিয়েছিলেন মুখ্য নির্বাচন কমিশনার ওম প্রকাশ রাওয়াত।বিশেষ  সূত্রে জানা গেছে , আজকের বৈঠকে নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে স্পষ্ট বলা হয়েছে, প্রচারের সময়সীমা শেষ হয়ে যাওয়ার পর সোশ্যাল মিডিয়াকে কাজে লাগিয়ে প্রচার চালানো যাবে না।
কমিশন সূত্রে খবর, এসপ্তাহে প্রথম দফায় রাজ্যে আসছে নতুন প্রযুক্তির ইভিএম। এই মেশিনগুলোতেই লোকসভা নির্বাচন হওয়ার কথা। অর্থাৎ আজ তৃণমূলসহ বিরোধী দলগুলি ব্যালট ব্যবহারের যে প্রস্তাব দিয়েছে সেটা যে মানা হবে না, তা একপ্রকার নিশ্চিত।


শেয়ার করুন
  • 12
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment