জেলা 

তৃণমূল-বিজেপি জোট ! মালদার ছটি পঞ্চায়েতে ধর্মনিরপেক্ষ কংগ্রেস-বামদের পঞ্চায়েত বোর্ড দখল আটকাতে, জোটবদ্ধ জোড়া ফুল ও পদ্ম ফুল

শেয়ার করুন
  • 27
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিনিধি : বাম নেতা সুজন চক্রবর্তী, মুহাম্মদ সেলিম কিংবা প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরি প্রায় বলে থাকেন মোদীভাই আর দিদিভাই-এর মধ্যে গোপন আতাঁত আছে । তা সত্ত্বেও রাজ্যের সাধারণ মানুষ মনে করেন বিজেপি বিরোধী প্রধান মুখ হলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় । আর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিরাট কোহলীর ব্যাটিং-এর মতোই মোদীর বিরুদ্ধে ঝোড়ো ব্যাটিং করছেন। ২০১৯-এর নির্বাচনকে সামনে রেখে বিজেপিকে হঠাতে ফেডারেল ফ্রন্ট গড়তে চান তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধায়। এহেন পরিস্থিতিতেও বিজেপির সঙ্গে জোট তৃণমূলের! ভাবা যায়! নাকি মিডিয়ার মিথ্যা প্রচার ? কিন্ত আসল সত্য হল,উত্তরবঙ্গের একাধিক জায়গায় বিজেপিকে সঙ্গে নিয়েই পঞ্চায়েতের বোর্ড গঠন করেছে তৃণমূল।

মালদা  ও উত্তর দিনাজপুর জেলায় পঞ্চায়েতের বোর্ড গঠন নিয়ে গোটা রাজ্যের থেকে চিত্রটা একটু অন্য। কোথাও তৃণমূল বিজেপিকে সাহায্য করছে। কোথাও বিজেপিকে তৃণমূল সাহায্য করছে। মালদায় ১৪৬ টি গ্রাম পঞ্চায়েতের মধ্যে প্রায় ৫০ টির বোর্ড গঠন প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ হওয়ার পথে। । যার মধ্যে ছটিতে জোট হয়েছে বিজেপি-তৃণমূলের। যার মধ্যে রয়েছে, মানিকচকের চৌকি মিরদাদপুর, বামনগোলার বামনগোলা ও চাঁদপুর, হবিবপুরের কানতুর্কা, ধুমপুর, বুলবুলচণ্ডী। অন্যদিকে, উত্তর দিনাজপুরের ৯৮ টি গ্রাম পঞ্চায়েতে বোর্ড গঠনের প্রক্রিয়া চলছে। একাধিক জায়গায় তৃণমূল-বিজেপি-র বোর্ড গঠনের খবর পাওয়া গিয়েছে। কালিয়াগঞ্জের রাধিকাপুরে বোর্ড গঠন করেছে এই দুই দল। প্রধান বিজেপি-র আর উপপ্রধান তৃণমূলের।এই জোট নিয়ে সরাসরি কিছু বলতে চাইছেন না দুদলের জেলা নেতারা। আপাতত নানা কারণ খাড়া করছেন তাঁরা।

অবশ্য নিন্দুকেরা বলছেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দলের জন্ম হয়েছে বিজেপি-র সাহায্যে । এই দলের অনেক নেতা আছেন যারা গোপনে বিজেপির সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করে থাকেন। আর বিরোধী দলের নেতারা বলছেন, পঞ্চায়েতের বোর্ড গঠন করার মাধ্যমেই তৃণমূল বিজেপির গোপন আতাঁত প্রকাশ্যে এসে পড়ল । অবশ্য ওয়াকিবহাল মহল মনে করছেন , পঞ্চায়েত স্তরে নিজেদের আধিপত্যকে বজায় রাখার জন্য তৃণমূল কংগ্রেস যেভাবে বিজেপির সঙ্গে আতাঁত করছে তাতে রাজ্যের ধর্মনিরেপেক্ষ মহল অস্বস্তিতে। এর প্রভাব আগামী দিনে রাজ্য রাজনীতিতে বিজেপির উত্থানের পথকে ত্বরান্বিত করবে।


শেয়ার করুন
  • 27
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment