জেলা 

চিকিৎসায় গাফিলতিতে রুগী মৃত্যুর অভিযোগে দুর্গাপুরে বেসরকারী হাসপাতালের কর্মীদের ঘিরে তুমুল বিক্ষোভ

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সেখ আবদুল আজিম : গত ২৬ জুলাই  দুর্গাপুরের আমরাইয়ের বাসিন্দা শেখ রমজান আলী পিত্তথলির অস্ত্রপ্রচারের জন্য বিধাননগরে বেসরকারী এক সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ভর্তি হন।কিন্তু অস্ত্রপ্রচারের পরপরই বছর ৪৫এর শেখ রমজান আলীর শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে শুরু করে। গত বুধবার রাতে ফের শেখ রমজান আলীর অস্ত্রপ্রচার হয়। কিন্তু অত্যধিক রক্তক্ষরণনে রমজানের মৃত্যু হয় বলে সূত্রের খবর।বৃহস্পতিবার সকালে রুগীর মৃত্যু হয়েছে এই খবর হাসপাতালের তরফে রুগীর আত্মীয়দের জানানোর পরই পরিস্থিতি অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে।

চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগ তুলে মৃতের আত্মীয় পরিবার পরিজন ও পড়শিরা তুমুল বিক্ষোভ শুরু করে দুর্গাপুরের ঐ বেসরকারী হাসপাতালের সামনে,বিক্ষোভ শুরু হয় হাসপাতাল কর্মী ও কর্তৃপক্ষকে ঘিরে ধরে।মৃতদেহ নিতে অস্বীকার করে পরিবারের লোকজন।পরিস্থিতি সামলাতে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে নিউটাউনশীপ থানার পুলিশ,কিন্তু পুলিশকে ঘিরে ধরেও ক্ষোভ প্রকাশ করতে থাকে মৃতের আত্মীয় পরিবার পরিজনরা।

স্রেফ চিকিৎসায় গাফিলতির জন্য মৃত্যু হলো তাদের প্রিয়জনের।দুর্গাপুরের বিধাননগরের বেসরকারী হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন,বিভাগীয় তদন্ত হচ্ছে এই ঘটনার।হাসপাতালের চিফ মেডিকেল সুপারেনটেনডেন্ট ডক্টর দুর্গাদাস রায় স্বাস্থ্য সাথী  কার্ড নিয়ে রুগী হেনস্থার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।বৃহস্পতিবার সকালে চিকিৎসায় গাফিলতিতে রুগী মৃত্যুর এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে দুর্গাপুরে যে, পরিস্থিতি সামলাতে বেশ বেগ পেতে হয় পুলিশকে।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ