কলকাতা 

সুপ্রিম কোর্টের রায় নিয়ে প্রতিক্রিয়া মুখ্যমন্ত্রীর ‘পঞ্চায়েতের এই জয়, রাজ্যের মানুষের জয় , গনতন্ত্রের জয় ‘

শেয়ার করুন
  • 9
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বিশেষ প্রতিবেদক : বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী আসনে আজ গেজেট নোটিফিকেশন জারির অনুমতি দিল সুপ্রিম কোর্ট। এর ফলে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী আসনগুলিতে আর ভোট হচ্ছে না।  সুপ্রিম কোর্ট আজ স্পষ্ট জানিয়েছে, নতুন করে কোনও ভোট হবে।  বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায়  জয়ী প্রার্থীদের নামও ঘোষণা করা যাবে। অনলাইনে বা হোয়াটসঅ্যাপে নমিনেশন দেওয়ার যে রায় কলকাতা হাইকোর্ট দিয়েছিল তাও এদিন বিবেচনার মধ্যে রাখেনি শীর্ষ আদালত। কারণ পঞ্চায়েত আইনে এমন কোনও নিয়ম নেই বলে জানানো হয়েছে।

 সুপ্রিম কোর্টের রায়ের পর আজ নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এ বিষয়ে প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে বলেন, “পঞ্চায়েতে জয় রাজ্যের মানুষের জয়, গণতন্ত্রের জয়। জগাই, মাধাই ও বিদায় ( সিপিএম, কংগ্রেস ও বিজেপি) কুৎসা ও অপপ্রচার করেছিল। রাজ্যের মানুষকে অপমান করেছিল। আজ সুপ্রিম কোর্টের রায় তারই জবাব। আগে বহু নির্বাচনে ভোট হয়নি। বিজেপি রাজ্যের বদনাম করতেই সুপ্রিম কোর্টে গেছিল। আদালত যা বুঝেছে তাই রায় দিয়েছে।”

পঞ্চায়েত নির্বাচন নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের রায়কে স্বাগত জানিয়ে  মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল কংগ্রেস প্রধান মমতা বন্দোপাধ্যায় নবান্নে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন পঞ্চায়েতে জয় রাজ্যের মানুষের জয়, গণতন্ত্রের জয়। সিপিএম কংগ্রেস বিজেপি-যে ভাবে কুৎসা অপপ্রচার করেছিল আজকে সুপ্রিম কোর্টের রায়ে তার জবাব মিলেছে। বিরোধীরা জোট বেঁধে রাজ্যের সম্মান ভূলুণ্ঠিত করেছিল বলে তার অভিযোগ। সুপ্রিম কোর্টের রায়ের প্রেক্ষিতে মুখ্যমন্ত্রী এদিন পুনরায় জোর গলায় দাবি করেছেন যে পঞ্চায়েত নির্বাচনে প্রার্থী না দিতে পারা নিয়ে বিরোধীরা যে অভিযোগ এনেছিল তা অমূলক। তিনি এ দিন দাবি করেন তৃণমূল কংগ্রেস ভোটে লড়াই করেই জেলা পরিষদের ৮৪ শতাংশ আসনে জিতেছে। যেসব আসনে বিরোধীরা প্রার্থী দিতে পারেনি সেখানে স্থানীয় ফ্যাক্টর কাজ করেছে বলে তিনি  দাবি করেছেন। মুখ্যমন্ত্রী বলেন শাসক দলে থাকা সত্ত্বেও বেলপাহাড়িতে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী দিতে পারেনি।

 এ প্রসঙ্গে তিনি দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যগুলি, মধ্য প্রদেশ ,অন্ধ্রপ্রদেশ উত্তর প্রদেশের মত রাজ্যের পঞ্চায়েত নির্বাচনের নজির টানেন। সিকিম ও দেশের উত্তর পূর্বাংশের রাজ্যগুলোতে পঞ্চায়েত নির্বাচনে ৮১ শতাংশ আসনে কোনো প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয়নি বলে তার দাবি। সুপ্রিম কোর্টে রাজ্য সরকার তার হলফনামায় এইসব বিষয়গুলো তুলে ধরেছিল বলে মুখ্যমন্ত্রী জানান। বিজেপি দেশে স্বৈরাতন্ত্রী সরকার চালাচ্ছে বলেও তিনি অভিযোগ করেন।

শেয়ার করুন
  • 9
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment