প্রচ্ছদ 

Modi vs Mamata : ২০২৪ এর লোকসভা নির্বাচনে বিরোধী দলগুলির সম্মিলিত জোটের প্রধান মুখ হতে চলেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সেখ ইবাদুল ইসলাম : ২০২১-এর বিধানসভা নির্বাচনে  জয়ের পর সমগ্র দেশজুড়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জনপ্রিয়তা বিপুল হারে বেড়েছে । সেই জনপ্রিয়তায় এখন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে টেক্কা দিতে চলেছেন মমতা । এই পরিস্থিতিতে আগামী কাল বিরোধী দলগুলির সঙ্গে বৈঠক করতে চলেছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় । তার আগে আজই তিনি বৈঠক করবেন প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে । সেই বৈঠকে সাধারণত রাজ্যের দাবি দাওয়া নিয়ে আলোচনা হবে । এরপর আগামী কাল যে বৈঠক হবে সেই সভার দিকে তাকিয়ে রয়েছে সমগ্র দেশ ।

ইতিমধ্যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সংসদীয় দলের নেতা নির্বাচিত হয়েছেন। এর মাধ্যমে সমগ্র দেশের সামনে তিনি বার্তা দিলেন এবার লড়াই মোদী বনাম মমতা । সংসদীয় দলের নেত্রী নির্বাচিত হওয়ার পরেই স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন দেখা দিয়েছে তিনি দিল্লিতে না থাকলেও কীভাবে এই পদ সামলাবেন ? কেন তাঁকে এই পদে বসানো হলো ? তার কারণ বাংলার মুখ্যমন্ত্রীকে জাতীয় নেত্রী হিসাবে তুলে ধরার প্রয়োজন ছিল । সেই প্রয়োজনীয়তা থেকেই এই পদ তাঁকে দেওয়া হয়েছে । এবার থেকে সংসদের ভেতরে এবং বাইরে যা করবেন তৃণমূল সাংসদরা তাঁর সবটাই মমতার নির্দেশ মতোই হবে ।

দেশের সামনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একটি মুখ যার বিরুদ্ধে কারও তেমন অভিযোগ নেই । এমনকি বিজেপির নেতারা তৃণমূলের অন্য নেতাদের বিরুদ্ধে মন্তব্য করলেও মমতার বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ করার সাহস দেখাতে এখনও পর্যন্ত পারেননি । কারণ মমতার নিজস্ব সততা, পরিচ্ছন্ন ভাবমূর্তি নিয়ে কোনো প্রশ্ন নেই । তিনি যা বলেন, তা করে দেখান । দ্বিচারিতা শব্দটি তাঁর অভিধানে নেই । এমন একজন নেত্রী যে মোদী বিরোধী জোটের মুখ হলে সমস্ত বিরোধী দলেরই সুবিধা হবে । কারণ মোদী সরকার বিগত সাত বছরে সব দিক থেকেই ব্যর্থ হয়েছে বললে অত্যুক্তি হবে না ।

এই মুহুর্তে কংগ্রেসকে সামনে রেখে লড়াই করার সুযোগ করে দিতে পারেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় । তাই ইতিমধ্যে কংগ্রেস দল প্রকাশ্যে না হলেও মমতার পক্ষেই পরোক্ষেই যে থাকবে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না । আবার কংগ্রেস দল যদি প্রকাশ্যেই মমতাকে জোটের নেত্রী বলে ঘোষনা করে দেয় তাহলে তো কোনো কথায় নেই । সেদিকে বিষয়টি যাচ্ছে বলে রাজনৈতিক মহল মনে করছে । কারণ কংগ্রেস দল মনে করে দেশের মসনদ থেকে বিজেপিকে সরাতে হবে । আর সেটা করতে গেলে যাকে প্রয়োজন হবে তাঁকেই সামনে আনতে হবে । এক্ষেত্রে মমতাতে কোনো আপত্তি নেই সোনিয়ার ।

 

কংগ্রেস চাইছে মমতা সামনে থেকে মোদীর বিরোধিতা করুক তাকে সমর্থন দেবে তারা । মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ফোনে আড়িপাতা কান্ডে যেভাবে তিনি তদন্ত কমিশন গঠন করলেন, এই ধরনের কমিশন গঠনের প্রবণতা এবার বিরোধী দলের রাজ্য সরকারগুলিও করতে থাকবে । ফলে কেন্দ্র তদন্ত করতে না চাইলেও রাজ্যগুলির চাপের কাছে অসহায় হয়ে যাবে । ফোনে আড়িপাতা কান্ডে অনেকটাই ব্যাকফুটে চলে যাবে বিজেপি ।

এদিকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দিল্লিতে পৌছে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে যেভাবে বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি তাঁকে নিয়ে উচ্ছ্বাস দেখিয়েছে তাতে একথা বলতে দ্বিধা নেই ২০২৪-এর লোকসভা নির্বাচনে মোদীর সঙ্গে জোর টক্কর দেবেন মমতা ।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ