আন্তর্জাতিক 

আফগানিস্তানের পর এবার ইরাক থেকেও মার্কিন সেনা প্রত্যাহার করার সিদ্ধান্ত ঘোষণা করলেন জো বাইডেন

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক: মুসলিম দেশগুলো থেকে সেনা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছেন আমেরিকান প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। আগামী ৩১শে আগস্ট এর মধ্যে আফগানিস্তান থেকে সেনা প্রত্যাহার করে নেবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এর পরেই নাকি ইরাক থেকে সেনা প্রত্যাহার করবে যুক্তরাষ্ট্র।

সোমবার ওভাল অফিসে ইরাকের প্রধানমন্ত্রী মুস্তাফা আল-খাদিমির সঙ্গে বৈঠকের পর বাইডেন জানান, ২০২১ সালের মধ্যেই ইরাকে সমস্ত সেনা অভিযান শেষ করবে আমেরিকা।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, “আমার মনে হয় এখন পরিস্থিতি ভাল। আমাদের ভূমিকা মূলত প্রশিক্ষণ দেওয়া, মদত করা ও ইসলমিক স্টেটের মোকাবিলা করার ক্ষেত্রে থাকছে। তবে এই বছরের শেষের দিক থেকে আর আমরা কমব্যাট মিশন (সরাসরি সেনা অভিযান) চালাব না। ইরাকে গণতন্ত্র মজবুত করতে আমরা সাহায্য করব। আগানি অক্টোবর মাসে সুষ্ঠু নির্বাচন নিশ্চিত করতে আমরা চেষ্টা করব। নিরাপত্তা ও ইসলামিক স্টেটের সঙ্গে যৌথভাবে লড়াইয়ের বিষয়ে আমেরিকা দায়বদ্ধ। নতুন পর্যায়ে গেলেও সন্ত্রাস দমন অভিযান চলবে তথা আঞ্চলিক নিরাপত্তার বিষয়টি নজরে রাখা হবে।”

সিএনএন সূত্রে খবর, বর্তমানে ইরাকে প্রায় ২ হাজার ৫০০ মার্কিন সেনা মোতায়েন রয়েছে। মূলত ইসলামিক স্টেটের বিরুদ্ধে লড়াই চালাচ্ছে তারা। কিন্তু সোমবারের ঘোষণার পর সেই সংখ্যা কমতে পারে। বলে রাখা ভাল, ২০০৩ সালে গণবিধ্বংসী অস্ত্রভাণ্ডার খোঁজার নামে সাদ্দাম হুসেনের বিরুদ্ধে লড়াই ঘোষণা করে ইরাকে হানা দেয় আমেরিকা।

প্রায় দুই দশক ধরে আমেরিকা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সেনা রেখেছিল এবং সেই সেনাবাহিনী দিয়ে ইরাকে নানা রকম কাজ তারা করেছে। এই কাজ করতে গিয়ে বিশাল অংকের আর্থিক ক্ষতির মুখোমুখি পড়তে হয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে। ফলে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের যৌনতার প্রশ্নের মুখোমুখি পড়তে হয়েছে মার্কিন প্রশাসনকে এই কারণেই মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নিলেন।

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ