কলকাতা 

State Budget 2021: পাঁচ বছরে দেড় কোটি মানুষের কর্মসংস্থান হবে আশাবাদী মমতা

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : তৃতীয় মমতা সরকারের প্রথম বাজেট কর্মমুখী করে তুলল মমতা সরকার। এই এই বাজেটে  কর্মসংস্থানে সবচেয়ে বেশি জোর দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র। বুধবার বিধানসভায় অসুস্থ অমিত মিত্রর পরিবর্তে বাজেট পেশ করেন পার্থ চট্টোপাধ্যায় । তিনিই ঘোষণা করেছেন, আগামী পাঁচ বছরে রাজ্যে দেড় কোটি কর্মসংস্থান তৈরির ব্যাপারে আশাবাদী রাজ্য সরকার। যদিও, কর্মসংস্থান তৈরির জন্য আলাদা কোনও প্রকল্প বা বরাদ্দ ঘোষণা করা হয়নি বাজেটে।

কর্মসংস্থান নিয়ে ভোটের আগে একাধিকবার বিরোধীদের খোঁচা শুনতে হয়েছে রাজ্যকে। বস্তুত শুরু থেকেই রাজ্যের শিল্পায়ন এবং কর্মসংস্থান নিয়ে বিরোধীদের তোপের মুখে পড়তে হয়েছে রাজ্য সরকারকে। চলতি বছরের বিধানসভা নির্বাচনের আগে সম্ভবত সেকারণেই মমতাকে বলতে হয়েছিল, ‘এবারে ক্ষমতায় এলে ডবল ডবল চাকরি হবে।’ শুধু তাই নয় গত ৫ ফেব্রুয়ারি ভোটের আগে যে ভোট অন অ্যাকাউন্ট পেশ করা হয়েছিল, তাতেও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়  ঘোষণা করেছিলেন আগামী ৫ বছরে দেড় কোটি মানুষের কর্মসংস্থান হবে। সেই ঘোষণাই এদিন বাজেট বক্তৃতায় আরও একবার তুলে ধরেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তিনি বলেন,”৫ ফেব্রুয়ারি পেশ করা অন্তর্বর্তী বাজেটের প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী আমরা আশাবাদী যে, আগামী ৫ বছরে ১.৫ কোটি নতুন কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করতে পারব।”

কীভাবে দেড় কোটি কর্মসংস্থান হবে? বাজেটে পার্থবাবু সেভাবে ব্যাখ্যা না করলেও বাজেটের পরে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কথায় কিছুটা ইঙ্গিত মিলেছে। মুখ্যমন্ত্রী এদিন বলেন, দেউচা পাচামিতে ১ লক্ষ মানুষের কাজ হবে। রঘুনাথপুরে ৭২ হাজার কোটির বিনিয়োগ এসেছে। তাতে দুই থেকে আড়াই লক্ষ মানুষের কাজ হয়েছে। এছাড়াও সিলিকন ভ্যালিতেও ১১ হাজার কোটির বিনিয়োগ হয়েছে। ৫ বছরে ১০ লক্ষ স্বয়ম্ভর গোষ্ঠী তৈরি করবে রাজ্য সরকার। যা কর্মসংস্থান তৈরিতে সহায়ক হবে। ” এছাড়াও সার্বিকভাবে রাজ্যের বিভিন্ন প্রকল্পে বহু মানুষের কর্মসংস্থান হবে বলে দাবি করেছেন মুখ্যমন্ত্রী।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ