কলকাতা 

‘দূর্যোগ মোকাবিলায় আমরা কেরলের পাশে রয়েছি। কেরল দ্রুত স্বাভাবিক হবে বলে আশা করি ‘ সহানুভুতির বার্তার পাশাপাশি ১০ কোটি টাকা সাহায্য দেওয়ার ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর

শেয়ার করুন
  • 5
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিনিধি : পঞ্জাব, দিল্লি, কর্ণাটক, মহারাষ্ট্র, তামিলনাড়ু সরকার কেরালার মানুষের পাশে দাঁড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে আর্থিক সাহায্য বাড়িয়ে দিয়েছে । কিন্ত বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সাহায্যের হাত কেন বাড়িয়ে দিচ্ছেন তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছিল, ঠিক তখনই মুখ্যমন্ত্রী বন্যাদুর্গতদের জন্য ১০ কোটি টাকা ত্রাণ সাহায্য দেওয়ার সাহায্য করার কথা ঘোষণা করল।

রবিবার টুইট করে মুখ্যমন্ত্রী জানান, কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ণের ত্রাণ তহবিল এই অর্থ পাঠানো হবে। টুইটারে মুখ্যমন্ত্রী লিখেছেন, ‘কেরলের ভাই-বোন, জানি, তোমাদের জন্য কোনও শব্দই যথেষ্ট নয়। তবু বলছি, তোমাদের জন্য প্রার্থনা করছি। এই প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের ফলে যাঁরা প্রিয়জনদের হারিয়েছেন, তাঁদের জন্য জানাচ্ছি সমবেদনা।

এই বন্যার সঙ্গে আর এদিন কেরলের জন্য ১০ কোটি টাকার ত্রাণ ঘোষণা করে মুখ্যমন্ত্রী টুইট করেন, ‘দুর্যোগ মোকাবিলায় আমরা কেরলের পাশে রয়েছি। কেরল দ্রুত স্বাভাবিক হবে বলে আশা করি।’ তিনি লেখেন, ‘আমার হৃদয় পড়ে রয়েছে কেরালায়। যাঁরা বন্যাপীড়িত, তাঁরা যে অসম যুদ্ধ চালাচ্ছেন তাঁদের জন্য প্রার্থনা করি।’প্রাকৃতিক দুর্যোগ ক্রমেই বিপর্যয়ের রূপ নিয়েছে কেরালায়। এখন পর্যন্ত ২০ হাজার কোটি টাকা ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছেন কেরলের মুখ্যমন্ত্রী। কেন্দ্র মোট ৬০০ কোটি টাকা সাহায্য দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন। যদিও ওই টাকায় কোনওভাবেই কেরালার খামতি পূরণ সম্ভব নয় বলে মনে করেন মুখ্যমন্ত্রী।মুখ্যমন্ত্রী সরাসরি চিঠি দিয়ে আবেদন করেন, কেন্দ্র অন্তত ২০০০ কোটি টাকা সাহায্য করুক। প্রধানমন্ত্রীর জাতীয় ত্রাণ তহবিল থেকে ওই টাকা দেওয়া হোক।

 

 

 

 


শেয়ার করুন
  • 5
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment