দেশ 

কেরালার বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি হয়েছে ,মৃতের সংখ্যা তিন শতাধিক ছাড়িয়েছে, আজ বন্যা পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে কেরালা যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিনিধি : কেরালার বন্যা পরিস্থিতির ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে । এখনও চলছে বৃষ্টি। ক্রমাগত বৃষ্টি ও ধসের জেরে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩২৪।  এই তথ্য দিয়েছেন  কেরালার মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন। পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে আজ কেরালায় যাওয়ার কথা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির। প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপেয়ীর শেষকৃত্য সম্পন্ন হওয়ার পরই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আজ সন্ধ্যায় কেরালার উদ্দেশে রওয়ানা হবেন বলে জানা গেছে ।

তবে রাজ্যের ভয়াবহ বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে কেরালার মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়নের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর টেলিফোনে কথা হয়েছে। তিনি টুইটে এই খবর জানিয়েছেন । প্রধানমন্ত্রী টুইটে লিখেছেন “আমরা রাজ্যের বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করেছি। উদ্ধারকার্য নিয়েও কথা হয়েছে। ওখানে বন্যার জন্য যে পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে তা দেখতে আজ সন্ধ্যার পর আমি কেরালায় যাব।”

 উল্লেখ্য, ৮ অগাস্ট থেকে একটানা বৃষ্টি শুরু হয়ে চলেছে কেরালায়। ফলে ইতিমধ্যেই বিভিন্ন জায়গায় বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। পাশাপাশি বাড়ছে ভূমি ধসের ঘটনাও। ধস ও বন্যায় প্রতিদিন একাধিক মানুষের মৃত্যুর খবর আসছে। আজ পর্যন্ত ৩২৪ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

বৃষ্টির জন্য বিপর্যস্ত সড়ক, রেল ও আকাশপথে যোগাযোগ ব্যবস্থা। জলমগ্ন কোচি বিমানবন্দর। বিপর্যয় মোকাবিলা দপ্তর ও উপকূলরক্ষী বাহিনীর সঙ্গে উদ্ধারকার্যে নেমেছে ভারতীয় নৌ বাহিনী। হেলিকপ্টারে করে অনেক মানুষকে উদ্ধার করা হয়েছে বন্যা বিধ্বস্ত এলাকাগুলি থেকে। আজ আরও ২৩টি চপার ও ২০০টি নৌকা পাঠানো হবে উদ্ধারের কাজে। থিরুভল্লায় উদ্ধারের জন্য পাঠানো হয়েছে সেনাবহিনীর একটি দল।

শুক্রবার সকালে তিরুবনন্তপুরমে এসে পৌঁছেছে জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা দপ্তরের পাঁচটি ইউনিট। তারা উদ্ধারকার্য শুরু করেছে। আরও ৩৫টি দলে আসার কথা রয়েছে। এখন ২৪টি দল কাজ করছে। ইতিমধ্যেই ভারতীয় উপকূলরক্ষী বাহিনীর চারটি ক্যাপিটাল শিপ কোচিতে এসে পৌঁছেছে। এখনও পর্যন্ত ১৭৬৪ জনকে উদ্ধার করেছে উপকূলরক্ষী বাহিনী। ৪,৬৮৮ জনকে নিরাপদ জায়গায় সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

নতুন করে ধসের খবর পাওয়া গেছে ওয়ানন্দ জেলায়। জানা যাচ্ছে সেখানে বেশ কয়েকটি জায়গায় ছোটো ছোটো ধস নেমেছে। আবহাওয়া দপ্তরের পূ্র্বাভাস, আগামী ২৪ ঘণ্টায় ভারী বৃষ্টি হতে পারে। ফলে চিন্তা বেড়েছে আরও।

এদিকে সোশাল মিডিয়ায় বন্যা সংক্রান্ত কোনও ভুয়ো খবর না ছড়ানোর নির্দেশ দিয়েছেন কেরালার মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন। এপ্রসঙ্গে তিনি বলেন, “যারা রাজ্যের বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে ভুয়ো খবর ছড়াচ্ছে রাজ্য সরকার এবার তাদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেবে।”


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment