কলকাতা 

তৃণমূলের ফিরলেন মুকুল, প্রত্যাশা পূরন করতে পারবেন তো?

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নাজমা ইয়াসমিন : সদ্যসমাপ্ত বিধানসভা নির্বাচনে বিপুল জনাদেশ নিয়ে তৃণমূল কংগ্রেস ক্ষমতায় আসার পর বাংলার জনরব বলেছিল মুকুল রায় ফিরে আসছেন তৃণমূলে। যাই হোক আমাদের অনুমানকে সত্য করে মুকুল রায় হঠাৎই তৃণমূল কংগ্রেসে ফিরে এলেন আজ শুক্রবার। আজ সকাল থেকেই বাজারে চাউর হয়ে যায় কথাটা তৃণমূল কংগ্রেসের ফিরে আসছেন মুকুল রায়। মুকুল রায় ফিরবেন এটা বাস্তব ছিল এছাড়া মুকুল রায়ের কাছে অন্য কোন পথ ছিল না।

স্বাভাবিক নিয়মেই মুকুল রায় দলে ফিরেছেন  এটা যেমন সত্য ,তেমনি মুকুল রায় কি আগের সম্মান ফিরে পাবেন সেই প্রশ্নটাই রাজনৈতিক মহলের বড় হয়ে উঠেছে।? ২০২১ এর বিধানসভা নির্বাচন ছিল প্রথম রাজ্য বিধানসভার নির্বাচন যেখানে তৃণমূল কংগ্রেসে মুকুল রায় ছিলেন না। মুকুল বিহীন প্রথম নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেস খুব ভালো ভোটের ব্যবধানে জয়লাভ করেছে সুতরাং মুকুল রায়ের যে প্রাসঙ্গিকতা বা মুকুল রায়ের যে প্রয়োজনীয়তা সেটা তৃণমূল কংগ্রেসে এখন আর নেই বললেই চলে। এই অবস্থায় তৃণমূল দলে মুকুল রায়ের ফিরে আসাটা  তার কাছে কতটা সম্মানের সে নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

এটা ঠিক মুকুল রায় যে চ্যালেঞ্জ করেছিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে সেই চ্যালেঞ্জ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় সর্বসাকুল্যে জিতে গেছেন। তবে একটা বিষয় আজকে পরিষ্কার বোঝা গেছে তৃণমূল ছেড়ে যারা বিজেপিতে গেছেন তারা যদি তৃণমূলে যোগ দিতে চাইলে সেক্ষেত্রে সাংবাদিকদের তো বটেই কর্মীদের মধ্যেও নানা প্রশ্ন উঠে আসছে। আজ মুকুল রায়ের তৃণমূলে প্রত্যাবর্তন অনুষ্ঠানে সেই চিত্র দেখা গেল। বারবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে বলতে হয়েছে সাংবাদিকদের, ব্যাক্তিগত কোন প্রশ্ন করবেন না। তারপরেও সাংবাদিকরা নানা প্রশ্নে যখন জর্জরিত করতে থাকেন ঠিক সেই সময়ই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় হঠাৎই সাংবাদিক সম্মেলন শেষ করে দেন যেটা খুবই দৃষ্টিকটু বলে মনে হয়েছে।

মুকুল রায়ের মতো একজন সাংগঠনিক নেতাকে নেওয়ার ক্ষেত্রে তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্বকে খোদ মমতা বন্দ্যোপাধ্যাযকেও সাংবাদিকদের কাছে যেভাবে অস্বস্তিতে পড়তে হয়েছে এরপরে যদি রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় কিংবা সোনালী গুহের মতো নেতাদের দলে নেওয়া হয় তাহলে আরো অস্বস্তিকর প্রশ্নের মুখোমুখি হতে হবে তৃণমূল দলকে। আসলে বিপুল ভোটে জিতে আসা তৃণমূল কংগ্রেসের কাছে এই মুহূর্তে বিজেপি থেকে  দল ভাঙ্গিয়ে আনার কোন প্রয়োজন আছে বলে মনে হয় না।  এই দল ভাঙ্গানোর খেলা খেলতে গিয়ে বিজেপি নামক দলটিকে বাংলায় বেড়ে ওঠার সুযোগ করে দিয়েছিল তৃণমূল কংগ্রেস।  এবার দলছুটদের জায়গা দিয়ে আবার কোন বিপদ ডেকে আনতে চলেছে তৃণমূল কংগ্রেস সেটা ভবিষ্যত বলবে।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ