দেশ 

পাশে আরএসএস উত্তরপ্রদেশের কুরসি নিশ্চিত করলেন যোগী আদিত্যনাথ

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সেখ ইবাদুল ইসলাম: নরেন্দ্র মোদী অমিত শাহ – র বিরোধিতা সত্ত্বেও শেষ পর্যন্ত নাগপুরের আশীর্বাদে যোগী আদিত্যনাথ উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীর পদ নিশ্চিত করলেন। সদ্যসমাপ্ত উত্তরপ্রদেশের পঞ্চায়েত নির্বাচনের ফলাফল দেখি উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ কে সরিয়ে নতুন কোন মুখ্যমন্ত্রী করার চেষ্টা করেছিলেন মোদী অমিত শাহ। এ বিষয়ে অনেকটাই এগিয়ে ছিলেন মোদী অমিত শাহ। যোগী আদিত্যনাথ এর প্রতি বিজেপির বিধায়ক দেশ একটা বড় অংশ যে বিক্ষোভ ছিল সেই বিক্ষোভ কে কাজে লাগিয়ে মুখ্যমন্ত্রী কৌশিক থেকে যোগী আদিত্যনাথ কে সরানোর চেষ্টা করেছিলেন মোদির ঘনিষ্ঠরা। এমনকি 200 জন বিক্ষুব্ধ বিধায়কের স্বাক্ষর করার চিঠি স্পিকার রাধা মোহন সিং এর মাধ্যমে রাজ্যপাল আনন্দিবেন প্যাটেল এর কাছে জমা দিয়েছিলেন।

এর পরেই নড়েচড়ে বসেন যোগী আদিত্যনাথ তিনি সরাসরি হুমকি দেন তাকে মুখ্যমন্ত্রী করছে থেকে সরানোর চেষ্টা করা হলে তিনি পদত্যাগ করবেন এবং আলাদা দল তৈরি করে ভোটের ময়দানে নামবেন। যোগী আদিত্যনাথ এর এই হুংকারে শেষ পর্যন্ত হস্তক্ষেপ করতে হয় আরএসএস কে আরএসএস জানিয়ে দেয় নরেন্দ্র মোদী অমিত সাহা দের জেন্না যোগী আদিত্যনাথ আগামী বিধানসভা নির্বাচনে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী হবেন। উত্তরপ্রদেশের বিধানসভা নির্বাচনে হিন্দুত্ব লাইন হবে বিজেপির প্রধান এজেন্ডা।

নাগপুরের এই অবস্থানের পরে পরিস্থিতি পাল্টে যায় যোগী আদিত্যনাথকে গতকাল বৃহস্পতিবার দিল্লিতে ডেকে পাঠানো হয়। তিনি দিল্লি যান সেখানে গিয়ে অমিত শাহর সঙ্গে বৈঠক করেন একইসঙ্গে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে। মনে করা হচ্ছে অনেকটাই সমাধানসূত্র বেরিয়ে এসেছে ।

যদিও নরেন্দ্র মোদির সম্পর্কে যারা খোঁজ-খবর রাখেন তারা এটুকু জানেন তিনি এক পা পিছিয়ে গেলেও পরবর্তীকালে তিনি অনেকটাই এগিয়ে যান ।শেষ পর্যন্ত উত্তরপ্রদেশের রাজনীতি কোন দিকে মোড় নেয় সেই দিকেই তাকিয়ে থাকবে ভারতের জনতা ।

কারণ ২০২৪ এর লোকসভা নির্বাচনে উত্তরপ্রদেশের রাজনীতি হবে সমস্ত বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়ার গন্তব্যস্থল। উত্তরপ্রদেশ যেদিকে যাবে তারাই দিল্লির মসনদে ক্ষমতাসীন হবে । এটাই হচ্ছে প্রচলিত ধারণা ভারতীয় রাজনীতিতে।

আরএসএসকে পাশে পাওয়ার পরেই শোনা যাচ্ছে জাতীয় নির্বাচন কমিশনে অনুপ পান্ডে নামে অবসরপ্রাপ্ত আমলা কে নিয়োগ করার সিদ্ধান্ত নেয় যোগী আদিত্যনাথ। যোগীর এই আবদার মেনে নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের ওপর চাপ সৃষ্টি করে আরএসএস যার ফলে জাতীয় নির্বাচন কমিশনে অনুপ পান্ডের মত যোগী ঘনিষ্ঠ এক আমলা ঠাই পেয়ে গেলেন।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ