জেলা 

বজ্রপাতে নিহত পরিবারের দুয়ারে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : ইয়াস ঝড়ে বিধ্বস্ত বিভিন্ন এলাকায় গিয়েছিলেন তৃণমূলের যুব নেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। এবার বজ্রপাতে রাজ্যের যে 30 জন মানুষ মারা গেছেন তাদের প্রত্যেকের বাড়িতে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। শুধু সিদ্ধান্ত নেওয়ায় নয়, আজ থেকেই তিনি বিভিন্ন প্রান্তে গিয়েছেন। আজ বুধবার মুর্শিদাবাদের বহরমপুর ও রঘুনাথগঞ্জের মৃত ৯ জনের পরিবারের সঙ্গে দেখা করলেন তিনি। দলের তরফে ২ লক্ষ টাকা প্রতি পরিবারের সদস্যদের হাতে তুলে দিয়েছেন। এদিন আর্থিক সাহায্যের প্রতিশ্রুতি নিয়ে কেন্দ্রকে বিঁধেছেন অভিষেক। বলেছেন, “ওঁরা বলে আর আমরা কাজে করে দেখাই।”

এদিন বহরমপুরে পৌঁছন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে বহরমপুরের বানজেটিয়া ও হাতিনগরের দুই পরিবারের সঙ্গে কথা বলেন অভিষেক। বজ্রপাতে মৃত অভিজিৎ বিশ্বাস(৪২) ও প্রহ্লাদ মোরারির(৪০) সঙ্গে দেখা করেন তিনি। দুজনের বাড়িতে যান অভিষেক। খোঁজ নেন পরিবারের সদস্যদের। প্রহ্লাদ মোরারি দুই সন্তানকে কাছে টেনে নেন অভিষেক। জড়িয়ে ধরে সমবেদনা জানান। তাঁর কাছে সন্তানদের ভবিষ্যৎ নিয়ে নিয়ে চিন্তাপ্রকাশ করেন প্রহ্লাদ মোরারির স্ত্রী। তাঁর কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা হবে বলেও আশ্বাস দিয়েছেন অভিষেক। মুখ্যমন্ত্রীর কাছে বিষয়টি জানানো হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। সেখান থেকে অভিষেক যান রঘুনাথগঞ্জে। বজ্রপাতে রঘুনাথগঞ্জ ও সুতিতে ৮ জনের মৃত্যু হয়েছিল। নওদা তিরপাড়া এলাকায় মৃতদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করেন তিনি। সকলের সঙ্গে আলাদা আলাদাভাবে কথা বলেন। হাতে তুলে দেন আর্থিক সাহায্য।

সারা বছর পরিবারগুলির পাশে থাকার আশ্বাস দিয়েছেন অভিষেক। বলেন, “কোনও আর্থিক সাহায্যই এই ক্ষতি পূরণ করতে পারবেন না। তবু আমরা সারা বছর মানুষের পাশে আছি।”

এদিনের সফরে অভিষেকের সঙ্গে দুই মন্ত্রী আখরুজ্জমান এবং সাবিনা ইয়াসমিন ও জেলা সভাপতি আবু তাহেরও ছিলেন।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment