জেলা 

বিশ্বাসঘাতকদের ফেরানো যাবে না, রাজীবের বিরুদ্ধে ডোমজুড়ের বিভিন্ন প্রান্তে তৃণমূল কর্মীদের পোস্টার

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নাজমা ইয়াসমিন : বিশ্বাসঘাতকদের দলে ফেরানো যাবে না এই দাবী তৃণমূল কংগ্রেসের বিপুলভাবে উঠেছে। সদ্যসমাপ্ত বিধানসভা নির্বাচনে বিপুল জনাদেশ নিয়ে ক্ষমতায় আসার পর তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে গিয়েছিলেন তারা আবার মমতার কাছে ফিরতে চাইছেন। কিন্তু সংকটের সময় যেসব কর্মী তৃণমূলের পাশে ছিল তাদের দাবি কোনভাবেই ফেরানো যাবেনা বিশ্বাসঘাতকদের। গতকাল সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট করে প্রাক্তন মন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন বিপুল ভোটে জিতে আসা সরকারের বিরুদ্ধে অহেতুক মন্তব্য না করে বা 356 ধারা জারি করার হুমকি না দিয়ে করণা এবং পরবর্তী পরবর্তী সময়ে ইয়ার্স পরবর্তী সময়ে সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়ান টা সবচেয়ে জরুরি বলে তিনি মনে করেন।

রাজিব বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই বার্তা দেখে অনেকেই মনে করেছিলেন তৃণমূল কংগ্রেস এবার তার প্রতি নরম মন মানসিকতা দেখাবে কিন্তু তৃণমূল কর্মীরা তাকে গদ্দার বলেই অভিহিত করেছে। ডোমজুড় বিধানসভার বিভিন্ন এলাকায় পোস্টার দিয়ে এই গন্ডারকে জাতীয় দলে ফেরানোর না হয় তার জন্য দলনেত্রী কাছে আবেদন করেছেন তৃণমূল কর্মীরা। এমনকি দলের জেলার নেতা নেতৃত্ব তার প্রতি অনাস্থা জ্ঞাপন করেছেন।

গতকাল মঙ্গলবার বিজেপির বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়ে রাজীব লিখেছিলেন, “সমালোচনা তো অনেক হল। মানুষের বিপুল জনসমর্থন নিয়ে আসা নির্বাচিত সরকারের সমালোচনা ও মুখ্যমন্ত্রীর বিরোধিতা করতে গিয়ে কথায় কথায় দিল্লি আর ৩৫৬ ধারার জুজু দেখালে বাংলার মানুষ ভালভাবে নেবে না। আমাদের সকলের উচিত রাজনীতির ঊর্ধ্বে উঠে কোভিড ও ইয়াস- এই দুই দুর্যোগে বিপর্যস্ত বাংলার মানুষের পাশে থাকা।”

এরপরই তৃণমূল কর্মীরা রাজীবকে দলে না ফেরানোর দাবি তুলেছেন। এদিন ডোমজুড়ের বিভিন্ন স্থানে পোস্টার লাগিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর কাছে তাঁরা আরজি জানিয়েছেন, তৃণমূলে যেন কোনও গদ্দার, মীরজাফরদের জায়গা না দেওয়া হয়।

এ প্রসঙ্গে মন্ত্রী অরূপ রায়ের বক্তব্য, “প্রয়োজনের সময় যারা দলকে বিপদে ফেলে চলে যায়, সেই গদ্দারদের কোনও জায়গা নেই। দলে কোনও বিশ্বাসঘাতককে চাই না। মানুষ ওকে ৪২ হাজারের বেশি ভোটে হারিয়ে সেটা বুঝিয়েই দিয়েছে।”

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment