কলকাতা 

বামপন্থী নেতার শেষযাত্রায় লাল ঝান্ডা নেই, অভিমানে আলিমুদ্দিনেও গেল না সোমনাথের লাশ,তবে প্রথম বাঙালি স্পিকারের মৃত্যতে দেশজুড়ে শোক

শেয়ার করুন
  • 9
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বিশেষ প্রতিবেদক : বাম আন্দোলনের অন্যতম প্রথম সারির নেতা সোমনাথ চট্টোপাধ্যায়ের জীবনাবসন হয়েছে। ৮৯ বছর বয়সে সোমবার সকালে তিনি কলকাতার এক নামী বেসরকারী হাসপাতালে মারা যান। কিন্ত কমিউনিস্ট হয়েও তাঁর শেষ যাত্রাতে বাম চিহ্ন রাখলেন । এই বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদের লাল ঝান্ডায় নয়, বিদায় যাত্রায় সঙ্গী ছিল রাষ্ট্রীয় প্রতীক । যথাযোগ্য রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় তাঁকে শেষ শ্রদ্ধা জানালো হলেও কোথায় চির পরিচিত বাম চিহ্ন হারিয়ে গেছে বলে মনে হল। এমনকি পরিবারের বাধায় তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয়নি সিপিএমের রাজ্য কমিটির অফিস আলিমুদ্দিনে। নিরবে নিঃশব্দে ১০ বারের সাংসদ এবং প্রথম বাঙালি স্পিকার বামপন্থী রাজনীতির অন্যতম পুরোধা বিদায় বেলায় যেন তাঁর প্রাক্তন দলকে ব্যঙ্গ করে গেলেন। বলে গেলেন বিদায় কমরেড! বিদায়! অথচ বরাবর কমিউনিস্ট রাজনীতিতে বিশ্বাসী হলেও নিজস্ব চারিত্রিক গুণে দলের ঊর্ধে সমস্ত রাজনৈতিক দলের শ্রদ্ধা আদায় করে নিয়েছিলেন এই বর্ষীয়ান নেতা। তাঁর মৃত্যুর খবর প্রকাশ হতেই দেশজুড়ে রাজনৈতিক মহলে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ  :  রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ প্রাক্তন এই লোকসভা স্পিকারের প্রয়াণে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। তিনি জানিয়েছেন সংসদে তাঁর  উপস্থিতি ছিল দাপুটে। তিনি বলেন সোমনাথের প্রয়াণে বাংলা তথা ভারতের অনেক ক্ষতি হল।

প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়  :   প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্য়ায় সোমনাথ চট্টোপাধ্যায় সম্পর্কে বলেছেন তিনি শুধু একজন  বিশিষ্ট সাংসদই ছিলেন না একইসঙ্গে তিনি  সংবিধানবেত্তাও। প্রণব বাবু আরও জানিয়েছেন তাঁর এই প্রয়াণে তিনি এক বন্ধুকে হারালেন, রাষ্ট্র হারাল এক মহান সন্তানকে।
রাহুল গান্ধী : সোমনাথ চট্টোপাধ্যায়ের মৃত্যুতে গভীর শোক ব্যক্ত করেছেন, কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। ১০ বারের সাংসদ ও প্রাক্তন এই লোকসভার স্পিকার হিসেবে তিনি এক প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছিলেন।তিনি দলমত নির্বিশেষে  সাংসদ হিসেবে সকলের শ্রদ্ধা কুড়িয়েছিলেন বলে রাহুল গান্ধী মন্তব্য করেছেন।
সুষমা স্বরাজ :  শোক প্রকাশ করেছেন বিদেশমন্ত্রী তথা বিজেপি নেত্রী সুষমা স্বরাজ। তিনি জানিয়েছেন তাঁদের রাজনৈতিক মতাপার্থক্য ছিল, কিন্তু তা সত্ত্বেও তাদের মধ্যে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ছিল।
ওমর আবদুল্লা :  সোমনাথ চট্টোপাধ্যায়ের আত্মার শান্তি কামনা করেছেন ন্য়াশনাল কনফারেন্স নেতা ওমর আবদুল্লা। তিনি জানিয়েছেন সোমনাথের সঙ্গে পরিচয় ও তাঁর কাছ থেকে শেখার সুযোগ পাওয়াটা তাঁর কাছে বিরাট সম্মানের। তিনি আরও বলেন, সাম্প্রতিককালে সংসদ তাঁর অভাব বোধ করেছে। ওমর বলেন ভারত আজ এক ‘পার্লামেন্টারি জায়ান্ট’-কে হারাল।
মহম্মদ সেলিম :  সিপিআইএম নেতা মহম্মদ সেলিম জানিয়েছেন সোমনাথ চট্টোপাধ্যায়ের প্রয়াণে তিনি তাঁর পিতৃস্থানীয় এক ব্যক্তিত্বকে হারিয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন সোমনাথের কাছে তাঁর অনেক ঋণ রয়েছে।

লালু প্রসাদ যাদব :  আরজেডি নেতা লালুপ্রসাদ যাদবও জানিয়েছেন সোমনাথ চট্টোপাধ্যায় কিভাবে দলের ঊর্ধে উঠে সকলের শ্রদ্ধা কুড়িয়েছিলেন। তিনি আরও জানান সোমনাথ বাবুর সঙ্গে তাঁর অনেক সুখস্মৃতি রয়েছে। দুজনের খুব ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ছিল বলেও জানিয়েছেন লালু প্রসাদ।

অমিত শাহ :  বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ জানিয়েছেন লোকসভায় তাঁর দীর্ঘ উপস্থিতিতে লোকসভার ঐতিহ্যকে সমৃদ্ধ করেছেন।

অরবিন্দ কেজরিওয়াল  : সোমনাথ চট্টোপাধ্যায় বর্তমান সময়ের অন্যতম সেরা সাংসদ ছিলেন বলে জানিয়েছেন আপ নেতা অরবিন্দ কেজরিওয়াল। তিনি জানিয়েছেন গোটা দেশ তাঁর অভাব বোধ করবে। ভারত তাঁকে অন্যতম সেরা স্পিকার হিসেবে মনে রাখবে।

শরদ যাদব :  সোমনাথ চট্টোপাদ্য়ায়ের সংসদ ও সংবিধান নিয়ে বিরাট জ্ঞানের কথা বলেছেন শরদ যাদব। জানিয়েছেন তিনি ছিলেন ভনিতাহীন। তাঁর প্রয়াণে তিনি এক কাছের মানুষকে হারিয়েছেন বলে জানিয়েছেন এই জেডিইউ নেতা।


শেয়ার করুন
  • 9
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment