কলকাতা 

কৃষকসভার ডাকে জেল ভরো আন্দোলনকে ঘিরে রাজ্য জুড়ে বাম-কর্মী ও পুলিশের মধ্যে ধুন্ধুমার

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিনিধি : বামেদের আইন অমান্য আন্দোলনকে ঘিরে দক্ষিণবঙ্গের বহু জায়গায় অপ্রীতিকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়৷ এমনকি পুলিশের ব্যারিকেড সরানো ঘিরে ধস্তাধস্তিতে জড়িয়ে পড়ে পুলিশ ও বাম সমর্থকরা । পাশাপাশি বামেদের এই কর্মসূচির জেরে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ রাস্তায় যান চলাচল ব্যহত হয়৷ যানজটের জেরে চরম ভোগান্তিতে পড়তে হয় পথচারিদের৷

সারা ভারত কৃষকসভা ডাকে ফসলের ন্যায্য দাম, কৃষি ঋণ মুকুব-সহ বিভিন্ন দাবিতে বৃহস্পতিবার বারাসত চলো, জেল ভর কর্মসূচির আয়োজন করে তারা ৷ উত্তর চব্বিশ পরগনা কৃষক সভার ব্যানারে এই আইন অমান্য কর্মসূচি হলেও মূলত তা ছিল বামেদের কর্মসূচিই৷ বারাসতের পাঁচটি এলাকা থেকে বাম কর্মী-সমর্থকরা মিছিল করে বারাসত চাপাডালি মোড়ে এসে জমায়েত হন। ছিলেন সিপিএম নেতা তড়িৎ তোপদার, রেখা গোস্বামী, রমলা চক্রবর্তী থেকে নেপালদেব ভট্টাচার্যের মত নেতৃত্ব৷ বামেদের মুর্শিদাবাদ জেলা কমিটির পক্ষ থেকে জেল ভরো ও আইন অমান্য কমসূচির আয়োজন করা হয়। হাওড়ায় বাম নেতৃত্ব মিছিল করে হাওড়া ময়দান ফ্লাইওভারের সামনে এলে সেখানে পুলিশ ব্যারিকেড করে তাঁদের আটকায়। বাঁকুড়াতেও মিছিল বের করে বামেরা মিছিলটি বাঁকুড়া শহর পরিক্রমা করে জেলা শাসকের দফতরে হাজির হয়।কর্মসূচিতে সিপিএম নেতা পার্থপ্রতীম মজুমদার, মহিলানেত্রী সুদীপা বন্দ্যোপাধ্যায়-সহ প্রথম সারির বাম নেতৃত্ব উপস্থিত ছিলেন৷

বীরভূমের সিউড়ি প্রশাসন ভবনচত্বরে ধুন্ধুমার বেধে যায় এই জেল ভরো কর্মসূচি ঘিরে৷ পাঁচ দফা দাবিতে বৃহস্পতিবার দুপুরে সিউড়ি শহরের চাঁদমারি ময়দান থেকে সারা ভারত কৃষক সভা ক্ষেতমজুর ইউনিয়নের ডাকে  জেল ভরো কর্মসূচি সফল করতে মিছিল বের করে বামেরা ৷  মিছিলে পা মেলান সিপিআইএম’র জেলা সম্পাদক মনসা হাঁসদা, রাজ্য কমিটির সদস্য রামচন্দ্র ডোম প্রমুখ৷

জেল ভরো কর্মসূচি ঘিরে তমলুকের হাসপাতাল মোড়ে জমায়েত হয় বামেরা পুলিশের ব্যারিকেড ভাঙার ঘটনায় প্রায় ৩০০ জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। উপস্থিত ছিলেন ক্ষেতমজুর সংগঠনের রাজ্য সম্পাদক অমিয় পাত্র, জেলা সম্পাদক হিমাংশু দাস, সিপিএমের জেলা সম্পাদক নিরঞ্জন সিহি-সহ আরও অনেকে।

 

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment