কলকাতা 

বাংলার বিজেপি-র হিন্দুত্বেই ভরসা, লোকসভার আগে তিনটি রথ,২৫০ সভা করে ব্রিগেড ভরাবে বিজেপি এনআরসি ইস্যুতে তৃণমূলের পাল্টা প্রচার চালাবে দিলীপ-মুকুলরা

শেয়ার করুন
  • 8
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিনিধি : আর দেরি নয়, এবার সরাসরি সংঘাতে যেতে চাইছে বিজেপি নেতৃত্ব। আজ শনিবার ন্যাশনাল লাইব্রেরিতে বিজেপি-র  প্রশিক্ষণ শিবিরে এই সিদ্ধান্ত হয়েছে। সরাসরি হিন্দুত্ব সামনে রেখেই বাংলায় রাজনীতি করতে চাইছে বিজেপি। তাই শনিবার দলের প্রশিক্ষণ শিবিরে তিনটি রথ বের করার সিদ্ধান্ত  হয়েছে।৩, ৫ ও ৭ ডিসেম্বর যথাক্রমে তারাপীঠ, কোচবিহার ও গঙ্গাসাগর থেকে রথ বের হবে। মোট ২০ জন মন্ত্রী থাকবেন এই কর্মসূচিতে। পাশাপাশি ব্রিগেডে নরেন্দ্র মোদীর সভা এগিয়ে আনার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। যদি প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে সবুজ সংকেত পাওয়া যায় তাহলে ৯ জানুয়ারি ব্রিগেডে সভা করতে পারে বিজেপি।

আজকের প্রশিক্ষণ শিবিরে সিদ্ধান্ত হয়েছে এই রাজ্যে অসমের জাতীয় নাগরিক পঞ্জি নিয়ে তৃণমূল কংগ্রেস যেভাবে প্রচার করছে তার পাল্টা প্রচার বিজেপিও করবে। এছাড়া লোকসভা নির্বাচনের আগে বিজেপি ভোট মেরুকরণকে সঠিকভাবে কাজে লাগানোর উদ্দেশে তিনটি রথ বের করা হবে বলে সিদ্ধান্ত হয়েছে । রথগুলিকে বের করা হবে তিনটি হিন্দ্র ধর্মের প্রধান তীর্থস্তান থেকে । ৩ ডিসেম্বর প্রথম রথ বের হবে তারাপীঠ মন্দির প্রাঙ্গণ থেকে,৫ ডিসেম্বর দ্বিতীয় রথ বের হবে কোচবিহারের বিখ্যাত হিন্দু মন্দির থেকে, আর তৃতীয় রথ বের হবে কপিল মুনির আশ্রম গঙ্গাসাগর থেকে। তিনটি রথ রাজ্যের ২৯৪ টি বিধানসভা কেন্দ্র ঘুরবে। আজকের প্রশিক্ষণ শিবিরে সিদ্ধান্ত হয়েছে, প্রতিটি বিধানসভা কেন্দ্রে একটি বড় জমায়েত করা হবে।তবে সাংগঠনিক কারণে কয়েকটি বিধানসভা কেন্দ্রে বড় জমায়েত করতে না পারলে কমপক্ষে এই রথযাত্রা উপলক্ষে ২০০-২৫০টি জনসভা করবে বিজেপি। কেন্দ্রের বিজেপি দলের নেতাদের পাশাপাশি মন্ত্রীরাও এই সভাগুলিতে যোগ দেবেন এবং রথযাত্রাতে যোগ দেবেন বলে ঠিক হয়েছে।

তবে বিশেষ সূত্রে জানা গেছে কোন কারণে ৯ জানুয়ারি মোদীর সমাবেশ ব্রিগেডে না করতে পারলে তা জানুয়ারি মাসের শেষ সপ্তাহ কিংবা ফ্রেবয়ারি মাসের প্রথম সপ্তাহে সভা করার চিন্তাভাবনা করছে বিজেপি।এদিনের বৈঠকে দলের রাজ্য পর্যবেক্ষক কৈলাশ বিজয়বর্গীয় বলেন, রাজ্য নেতৃত্বকে আরও সক্রিয় হতে হবে। দলের কর্মীদের এগিয়ে আসতে হবে রথযাত্রা কর্মসূচি সফল করতে। এদিন মোদীর ব্রিগেড সভা বিষয়ক নানা সিদ্ধান্ত ছাড়া এনআরসি-প্রচার নিয়েও আলোচনা হয়।

 

 

 


শেয়ার করুন
  • 8
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment