দেশ 

ধর্ষিতা নাবালিকার এডিটিং করা ছবি্ও সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশ করা যাবে না : সুপ্রিম কোর্ট

শেয়ার করুন
  • 5
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিনিধি : আজ সুপ্রিম কোর্টে বিহারের মজফ্ফরপুরের শেল্টার হোমে নাবালিকাদের ধর্ষণ ও খুনের মামলার শুনানি চলছিল। এই শুনানী চলাকালীন সময়ে সুপ্রিম কোর্ট আজ নির্দেশ দেয় ,ধর্ষিতা নাবালিকার কোনওরকম ছবি বা ভিডিয়ো সংবাদমাধ্যমে প্রকাশ করা যাবে না। ধর্ষণের শিকার নাবালিকার ব্লার করা বা এডিটিং করা বা ভিডিয়ো প্রকাশ করা যাবে না। একইসঙ্গে এই  মামলাটিতে বিশেষভাবে নজর রাখা হবে বলে জানিয়েছে শীর্ষ আদালতের ডিভিশন বেঞ্চ।ধর্ষিত শিশুর পরিচয় কীভাবে সংবাদমাধ্যমে প্রকাশ পায় সেবিষয়েও যথেষ্ট উদ্বেগ প্রকাশ করে শীর্ষ আদালতের ডিভিসন বেঞ্চ।

বিহারের মুজফফরপুরের শেল্টার হোমের ঘটনায় ধর্ষণের শিকার হয়েছে ৩০ জনের বেশি নাবালিকা। অভিযোগের আঙুল উঠেছে হোমের কর্ণধার ব্রিজেশ ঠাকুরের দিকে। ব্রিজেশ ছাড়াও আরও ন’জনের বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করা হয়েছে। চার্জশিটে বলা হয়েছে, পুলিশ, রাজনৈতিক নেতা ও অপরাধীদের মদতে দীর্ঘ চারবছর ধরে হোমে এই পৈশাচিক ঘটনা চলছিল। ঘটনা সামনে আসে জুন মাসে টাটা ইনস্টিটিউট অফ সোশাল সায়েন্স-র পক্ষ থেকে  ২৬ মে একটি রিপোর্ট দেওয়া হয় বিহার সরকারকে। সেই রিপোর্টে জানানো হয়, ওই সরকারি হোমের নাবালিকাদের কথা শুনে মনে হয়েছে, তারা নিয়মিত ধর্ষণের শিকার। খবর জানাজানি হওয়ার পর পুলিশ ওই হোমে রেড করে এবং ৪৪ জনকে উদ্ধার করে। এখনও পর্যন্ত ব্রিজেশ ছাড়াও হোমের ১১ জন কর্মচারীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

বিরোধীদের চাপে শেষপর্যন্ত বাধ্য হয়েই বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার তদন্তের দায়িত্ব দেন সিবিআইয়ের হাতে।

 


শেয়ার করুন
  • 5
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment