দেশ 

দেশকে গৃহযুদ্ধের দিকে ঠেলে দিচ্ছে বিজেপি, বিশপদের সভায় বললেন মমতা

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিনিধি : দেশকে বিজেপি গৃহযুদ্ধের দিকে ঠেলে দিচ্ছে । অসমে হচ্ছে টা কী ? হঠাৎ করে বলা হচ্ছে দেশ ছেড়ে চলে যাও । দেশের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি ফকরুদ্দিন আরি আহমেদের পরিবারের সদস্যদের নাম জাতীয় নাগরিক পঞ্জিতে নেই ! এসব কী চলছে? আজ দিল্লিতে কনস্টিটিউশন ক্লাবে বিশপদের সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে এই ভাষাতেই বিজেপি ও কেন্দ্র সরকারকে নিশানা করলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

কনস্টিটিউশন ক্লাবে সোমবার আয়োজিত বিশপদের সভায় শুরুতেই পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী বলেন, প্রতিবেশীদের তাঁরা ভালবাসেন। বিদেশিরা তাদের অতিথি। তাদের তারা ভালবাসেন বলেও জানান মুখ্যমন্ত্রী। একথা বলতে গিয়ে উঠে আসে অসমের এনআরসি-র প্রসঙ্গ।  এনিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, বিচার যখন কাঁদে তখন তাঁদের পাশে দাঁড়ানোর পক্ষে তিনি। এই ধরনের পরিস্থিতি দেশে আগে তৈরি হয়নি বলেও জানান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

দেশকে বিজেপি গৃহযুদ্ধের দিকে ঠেলে দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।  তবে অতিথি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাষণে ছিল ভালবাসার বার্তা।লাভ ইওর নেবার। কে কী খাবে, কী পড়বে, তা বিজেপি ঠিক করে দিতে চাইছে বলে অভিযোগ করেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী।

দেশে দলিত ও আদিবাসীদের প্রতি অন্যায় করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, এই ধরনের ঘটনা তিনি কখনই সমর্থন করেন না। একইসঙ্গে গণপিটুনিতে মৃত্যু কেন হচ্ছে, তা নিয়েও কেন্দ্রকে প্রশ্ন করেন তিনি।

অনুষ্ঠানে দুঃস্থদের জন্য মিশনারিরা যে কাজ করছেন তার ভূয়সী প্রশংসা করেন।  মাদার টেরিজার সঙ্গে নিজের সম্পর্কের কথা তুলে ধরেন। কোনও এক রাতে সাহায্য চেয়ে মাদার আবেদন করার সঙ্গে সঙ্গে তিনি ছুটে গিয়েছিলেন বলেও জানিয়েছেন। আর ১৯৯২-এ বাবরি মসজিদ ভাঙার দিন কলকাতায় দাঙ্গায় মাদার ও তাঁর পথে নামার কথাও উল্লেখ করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment