দেশ 

জাতীয় নাগরিক পঞ্জি ইস্যুতে বিজেপি সভাপতি সাফাই দিতে গিয়ে অনুপ্রবেশকারীদের বিষয়ে বিরোধীদের দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে প্রশ্ন তুললেন, উত্তাল সংসদে অসহায় রাজনাথের সাফাই সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশেই এই তালিকা

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিনিধি : অসমের জাতীয় নাগরিক পঞ্জি ইস্যুতে আজও সংসদের দুই কক্ষ উত্তাল হয়ে ওঠে। বিরোধীদের হইহই হট্টগোলে দফায় দফায় সংসদের অধিবেশন মূলতুবি করে দিতে হয়।আবার বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ-র এক বক্তব্য গিলে রাজ্যসভা উত্তাল হয়ে ওঠে। এই ইস্যুতে রাজ্যসভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে অমিত শাহ আজ বলেন,”১৯৮৫ সালে প্রধানমন্ত্রী থাকাকালীন অসম চুক্তি সাক্ষর করেছিলেন রাজীব গান্ধি। যেটা জাতীয় নাগরিক পঞ্জির সমান। কিন্তু, তা বাস্তবায়িত করার সাহস তাঁর ছিল না।”  এরপরই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে রাজ্যসভা। ওয়েলে নেমে বিক্ষোভ দেখান কংগ্রেস সাংসদরা। পরে বিজেপি-র সভাপতি অমিত শাহ সাংবাদিক সম্মেলন করে বেশ কয়েকটি প্রশ্ন বিরোধীদের দিকে ছুঁড়ে দিয়েছেন। তিনি বলেন,গৃহযুদ্ধের ভয় দেখিয়ে একবার দেশকে ভাগ করা হয়েছে। কী বলতে চায় ? তৃণমূল কংগ্রেসকে এটা পরিষ্কার করে বলতে হবে ।আমি দৃঢ়তার সঙ্গে বিশ্বাস করি যে, অসমের NRC দেশের নিরাপত্তার পক্ষে সহায়ক হবেঅনুপ্রবেশকারীদের উৎসাহিত করা হলে, আমরা কীভাবে সীমান্তে ও আভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা বজায় রাখতে পারব ? সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশকে আমরা যথাযথভাবে বাস্তবায়িত করব।এদিকে এনআরসি ইস্যুতে আজ লোকসভায় বিবৃতি দেন রাজনাথ সিং। তিনি বলেন, “আমি বিরোধীদের প্রশ্ন করছি, এতে কেন্দ্রীয় সরকারের ভূমিকাটা কী ? গোটা বিষয়টি সুপ্রিম কোর্টের তত্ত্বাবধানে হচ্ছে। এধরনের স্পর্শকাতর বিষয় নিয়ে রাজনীতি করবেন না।”গতকাল অসমের নাগরিকপঞ্জির দ্বিতীয় ও চূড়ান্ত খসড়া প্রকাশ করা হয়। এই খসড়া থেকে বাদ পড়ে ৪০ লাখের নাম। এরপরই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে সংসদের দুই কক্ষ।

ছবি : ফাইল চিত্র


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment