কলকাতা 

আগামী বৃহস্পতিবার জাতীয় নাগরিক পঞ্জি ইস্যুতে অসম যাচ্ছেন তৃণমূল কংগ্রেসের ৮ সদস্যের প্রতিনিধিদল

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিনিধি : অসমে জাতীয় নাগরিক পঞ্জির চূড়ান্ত খসড়ায় ৪০লক্ষেরও বেশি মানুষের নাম বাদ যাওয়ায় সমগ্র দেশজুড়ে হইচই পড়েছে। গতকালই পশ্চিমবাংলার মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল সুপ্রিমো ঘোষণা করেছিলেন, অসমের বাঙালিদের পাশে তৃণমূল কংগ্রেস থাকবে । সেই তিনি অসমে দলের সংসদীয় প্রতিনিধি পাঠানোর কথাও ঘোষণা করেন। আজ জানানো হয়েছে  তৃণমূল কংগ্রেসের ৮ সদস্যের প্রতিনিধি দল আগামী বৃহস্পতিবার অসম যাচ্ছেন। এই দলে আছেন, সাংসদ সুখেন্দু শেখর রায়, কাকলি ঘোষ দস্তিদার, রত্না দে নাগ, নাদিমুল হক, অর্পিতা ঘোষ, মমতা ঠাকুর, বিধায়ক মহুয়া মৈত্র এবং রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম।

এদিকে, তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী, মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি, অসমে এন.আর.সি-র খসড়ায় ৪০ লক্ষ মানুষের নাম বাদ দেওয়ায় তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেন, এর ফলে বহু মানুষ নিজের দেশে উদ্বাস্তু হয়ে গেলেন। মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ, অসমে বাঙালী খেদাও চালানো হয়েছে। এ ব্যাপারে তিনি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলবেন। প্রয়োজনে তিনি অসমে যাবেন বলে মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন।

বিজেপি-র রাজ্য সভাপতি, দিলীপ ঘোষ বলেছেন, ক্ষমতায় এলে এরাজ্যেও তাঁরা এন.আর.সি প্রকাশ করবেন। কিছু রাজনীতিক, বাদ পড়া ব্যক্তিদের নিয়ে কুম্ভীরাশ্রু বিসর্জন করছেন এবং ভোটব্যাঙ্কের রাজনীতি এবার বন্ধ হওয়া দরকার বলেও তিনি মন্তব্য করেন। কংগ্রেস, এন.আর.সি ইস্যুতে মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোওয়ালের কাছে সর্বদলীয় বৈঠক ডাকার আবেদন জানিয়েছে।

আগেই জানানো হয়েছে, অসমে জাতীয় নাগরিকপঞ্জি এন.আর.সি-র দ্বিতীয় তথা চূড়ান্ত খসড়ায় ৪০ লক্ষেরও বেশি মানুষের নাম বাদ পড়ায়, সরকার ও বিরোধীদের মধ্যে রাজনৈতিক চাপানউতোর শুরু হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে সংসদের অধিবেশন গতকাল ও আজ উত্তাল হয়ে ওঠে।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment