দেশ 

গণপিটুনি ইস্যুতে কোণঠাসা সরকার, ধর্না-বিক্ষোভে উত্তাল সংসদ,আইন তৈরির উদ্যোগ রাজনাথের

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিনিধি : গণপিটুনি ইস্যুতে তোলপাড় সংসদ। বিরোধীদের তোপ সামলাতে ব্যর্থ হয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং-এর আশ্বাসবাণীও। বিরোধী বেঞ্চে বসে থাকা অধিকাংশ দলের অভি‌যোগ, সরকারের মদতেই চলছে গণপিটুনি। সকালেই এনিয়ে সংসদ চত্বরে ধর্নায় বসেছে তৃণমূল কংগ্রেস।
মঙ্গলবার অধিবেশন শুরুর আগে সংসদ চত্বরে গান্ধীমূর্তির পাদদেশে ধর্না অবস্থান করে তৃণমূল কংগ্রেস। তাঁদের দাবি গণপিটুনির পেছনে রয়েছে শাসক দলের মদত। অবিলম্বে এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে।
তৃণমূল সাংসদ দীনেশ ত্রিবেদী বলেন, ‘সরকার জানে গণপিটুনি কেন হচ্ছে। সুপ্রিম কোর্টও বলেছে গণপিটুনির কোনও জায়গা নেই। জনগণকে আইন নিজের হাতে তুলে নিতে দেওয়া ‌যায় না। তাই এ প্রবণতা থামানো প্রয়োজন। প্রথমেই বলব, আমাদের সঙ্গে হিন্দুত্ব নিয়ে বিতর্কে বসুক ওরা। হিন্দু ও হিন্দুস্থান আসলে কী, তা বোঝা খুবই জরুরি।’
এদিন সংসদে বিরোধীদের আক্রমণের মুখে চাপে পড়ে ‌যান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং। সকাল সাড়ে দশটা নাগাদ তৃণমূল কংগ্রেস ধর্নায় বসতেই স্পষ্ট হয়ে ‌যায় যে আজ এনিয়ে সংসদ উত্তাল হতে চলেছে। অধিবেশন শুরু হতেই বিরোধীদের চোখাচোখা প্রশ্নবাণ ছুটে আস রাজনাথের দিকে। বিরোধীদের রাজনাথ বলেন, ‘ইতিমধ্যেই স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক একটি কমিটি তৈরি করেছে। সেই কমিটি সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ মোতাবেক একটি আইনের রূপরেখা তৈরি করবে। সরকার গণিপটুনির ঘটনার শুধু উদ্বিগ্নই নয়, বিষয়টিকে ‌যথেষ্ট গুরুত্ব দিচ্ছে।’

রাজ্যসভায় বিষয়টি তোলেন তৃণমূল সংসদ শান্ত ছেত্রী। তিনি বলেন, সুপ্রিম কোর্টও গণপিটুনি রুখতে আইন প্রনয়নের কথা বলেছে। এই সরকার ক্ষমতায় আসার পর দেশে ৮৮ জন প্রাণ হারিয়েছেন গণপিটুনিতে।সরকার এই সমস্যা সমাধানে কী ব্যবস্থা নিয়েছে তা স্পষ্ট করুক।

Attachments area

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment