জেলা 

‘ আমরা কেউ হেলিকপ্টারে করে আসিনি , আমরা সিঁড়ি বেয়ে উঠেছি , সেই সিঁড়ি নির্মাণ করেছেন মমতাদি’: ফিরহাদ হাকিম

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : আজ সকালে নন্দীগ্রামের তোখালি ব্রিজের কাছে গোকুলনগের রক্তাক্ত নন্দীগ্রামের ১৩ বছর উপলক্ষে সভা করেন পরিবহণ মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী । তিনি এদিন তাঁর ভাষণে সেই অর্থে রাজনীতির কথা না বললেও কটাক্ষ করে বলেছিলেন ১৩ বছর পর নন্দীগ্রামের কথা মনে পড়ছে ! আর বিকেলে শুভেন্দুর সভার পাল্টা হিসাবে তৃণমূল কংগ্রেস পুরোটাই পথে নামল । কে নেই সেখানে একাধিক মন্ত্রী , ফিরহাদ হাকিম থেকে শুরু করে দোলা সেন পর্যন্ত সবাই উপস্থিত ছিলেন । এদিনের সভায় তৃণমূল নেতা সেক সুফিয়ান নাম না করে শুভেন্দুকে কটাক্ষ করেন । তিনি বলেন ,  মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বাদ দিয়ে নন্দীগ্রাম আন্দোলন সফল হতো না ।

সভার প্রধান বক্তা পুর-নগর উন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম বক্তব্য রাখতে গিয়ে বলেন , বামফ্রন্ট সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করতে নন্দীগ্রাম, সিঙ্গুর ও ভাঙরের আন্দোলনের বিরাট ভূমিকা ছিল । নন্দীগ্রামের আন্দোলনকে ‘ দ্বিতীয় স্বাধীনতা ’-র আন্দোলন বলা হয়ে থাকে । সেই আন্দোলনে সবার ভূমিকা ছিল , এটা স্বীকার করেও নিয়ে বলব সবার উপরে ছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় । মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যদি না থাকতেন তাহলে কী আন্দোলন সফল হতো । বামফ্রন্টের মত জগদ্দল পাথরকে সরানো সম্ভব হতো ? তারপরেই ফিরহাদ হাকিম বলেন ,  ‘ আমরা কেউ হেলিকপ্টারে করে আসিনি , আমরা সিঁড়ি বেয়ে উঠেছি , সেই সিঁড়ি নির্মাণ করেছেন মমতাদি’।

সিঁড়ি যদি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তৈরি না করত তাহলে আমরা এত কথার বলার সময় পেতাম কী প্রশ্ন তুললেন ফিরহাদ হাকিম ।  আসলে গত ৩১ অক্টোবর বিজয়া সম্মেলনে যোগ দিয়ে শুভেন্দু অধিকারী নন্দীগ্রামে বলেছিলেন , প্যারাশুটে নামিনি , লিফটে উঠিনি , আমি সিঁড়ি ভাঙতে ভাঙতে উঠে এসেছি । তাঁর সেই বক্তব্যকেই ফিরহাদ কটাক্ষ করলেন বলে রাজনৈতিক মহল মনে করছে ।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment